৫ জুন থেকে ডিএনসিসি’র ১৪ দিনব্যাপী ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন

শুক্রবার, জুন ৪, ২০২১,৪:৫৮ অপরাহ্ণ
0
20

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এ বছর প্রায় সাত লাখ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে। উত্তরের মোট ১৯০৫টি কেন্দ্রে এই ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে ছয় মাস থেকে পাঁচ বছর বয়সী শিশুদের। আগামী ৫ জুন থেকে ১৯ জুন পর্যন্ত (শুক্রবার ব্যতীত) ১৪ দিনব্যাপী এই ক্যাম্পেইন পরিচালনা করবে ডিএনসিসি।  

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ১০টি অঞ্চলের আওতাধীন ৫৪টি ওয়ার্ডে পরিচালিত হবে এই জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন। ডিএনসিসি এলাকার মোট ছয় লাখ ৯৮ হাজার ৮৫৮ জন শিশুকে ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে বিনামূল্যে। ছয় মাস থেকে ১১ মাস বয়সী সকল শিশুকে একটি করে নীল রঙের ‘এ’ ক্যাপসুল এবং ১২ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী সকল শিশুকে একটি করে লাল রঙের ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

ওরিয়েন্টেশন সভায় ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজা বলেন, শিশুর সুস্থভাবে বেঁচে থাকা, স্বাভাবিক বৃদ্ধি ও দৃষ্টি শক্তির জন্য ভিটামিন ‘এ’ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। ভিটামিন ‘এ’ চোখের স্বাভাবিক দৃষ্টি শক্তি ও শরীরের স্বাভাবিক বৃদ্ধি বজায় রাখে এবং বিভিন্ন রোগের বিরুদ্ধে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করে। ভিটামিন ‘এ’ এর অভাবে রাত কানা এবং অন্ধত্ব সহ চোখের অন্যান্য রোগ শরীরের স্বাভাবিক বৃদ্ধি ব্যাহত হওয়া, রক্তশুণ্যতা এবং শিশুর মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য নীতিমালা অনুযায়ী বছরে ২ বার ভিটামিন ‘এ’ এর অভাব পূরণের সম্পূরক খাদ্য হিসেবে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। তাই এই ক্যাম্পেইনটি সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট সকলকে ইতোমধ্যে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জোবায়দুর রহমান, উপ-প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা লে. কর্নেল গোলাম মোস্তফা সারওয়ার উপস্থিত ছিলেন।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে