৩০০ পিচ ইয়াবাসহ চিলমারীতে একজন আটক

রবিবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২০,৯:২৪ পূর্বাহ্ণ
0
6

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

এজি লাভলু, নিজস্ব প্রতিনিধি : কুড়িগ্রাম জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)র মাদক বিরোধী অভিযানে আটক হয়েছেন কৌশলী মাদক বিক্রেতা ও ফকিরেরহাট স্কুল মাঠে এবং বাধের রাস্তার পাশে মাদকসেবীদের আড্ডাগুরু মোহাম্মদ মিনহাজুল ইসলাম (২২)। এসময় তার কাছে ফয়েল পেপারে মোড়ানো ও নীল এয়ার টাইট ছোট পলি প্যাকে ৩০০ পিচ ইয়াবা পাওয়া যায়। সে তেতুল কান্দি বাগান বাড়ি, ফকিরেরহাট চিলমারী নিবাসী মোঃ আবুল কালামের পুত্র।

জানা যায় ২২ ফেব্রুয়ারি শনিবার সন্ধ্যায় কুড়িগ্রাম জেলা গোয়েন্দা পুলিশ শাখার নিজস্ব সোর্সিং এ বহুদিনের নজরদারীতে ফকিরেরহাট এলাকার অন্যতম মাদকসেবী ও মাদক ডিলার মিনহাজুল ইসলাম মাদক বেচাকেনার সময় হাতেনাতে ধৃত হয়। স্থানীয় সুত্রে জানা যায় এসময় অপরিচিত একজন মাদকক্রেতা কিংবা মাদকবহনকারী ডিবি পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে চোখের পলকে সটকে পরলেও মিনহাজুল পালাতে ব্যর্থ হয় এবং তার প্যান্ট শার্টের পকেট হতে ৩০০ পিচ ইয়াবা সহ তাকে আটক করা হয়। ইতিপুর্বে ডিবি পুলিশের একটি ইউনিট স্বন্ধ্যার পর গোপন সূত্রে খবর নিশ্চিত হয়ে মিনহাজুলের বাড়িতে মাদকসেবনরত অবস্থায় রেড দিয়েও তাকে ধরা যায়নি। তার বাড়িটি বাধরাস্তার পুর্বে অবস্থিত এবং একটি দিক নদীর সংযোগ খাল ও ডোবা দারা বেষ্টিত থাকায় সে ঐ পানি পথে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। তখন ঐ ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে তার শ্বশুড় হাজী সাহেবসহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ সবখানে তার ভালো হওয়ার এবং সে ব্যবসায়ী নয় বলে জোর আশ্বাস দিতে থাকে। সে একটি কাস্টমার কেয়ার কোম্পানীর প্রচার লিফলেট বিতরন কর্মে নিয়োজিত বলেও তাকে ভালো হওয়ার সুযোগের অনুরোধ আসতে থাকে। ডিবি অভিযানের পর বেশকয়েকদিন চুপচাপ থাকলেও পুনরায় তার মাদকব্যবসার কথা গণমাধ্যম কর্মী, স্থানীয় লোকজন এমনকি গোয়েন্দা সংস্থার কাছেও তথ্য আসতে থাকে। তার বাড়িতে এবং রাত্রে স্কুল মাঠসহ আশেপাশে সবসময় বাহিরের মাদকসেবীদের আনাগোনা পুনরায় চোখে পরে।

কুড়িগ্রাম জেলা গোয়েন্দা পুলিশ সংস্থা ডিবির অফিসার ইনচার্জ ওসি মোস্তাফিজার রহমান মাদকসহ মিনহাজুলের আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা রজু করা হয়েছে। জেলহাজতে প্রেরনের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে