স্বাস্থ্যতথ্য প্রদানে নিষেধাজ্ঞায় বিএফইউজে ও ডিইউজের উদ্বেগ প্রকাশ

শনিবার, জুলাই ১০, ২০২১,১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ
0
7

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) স্বাস্থ্য সেবা বিষয়ক কর্মকাণ্ড এবং রোগ ও রোগীদের সম্পর্কে গণমাধ্যমে তথ্য প্রদানে নিষেধাজ্ঞায় গভীর উদ্বেগ এবং নিন্দা জানিয়েছে।

এক যুক্ত বিবৃতিতে বিএফইউজে সভাপতি এম আবদুল্লাহ ও মহাসচিব নুরুল আমিন রোকন; ডিইউজে সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, ৮ জুলাই ২০২১ খ্রি. তারিখ ঢাকার সিভিল সার্জন ডাঃ আবু হোসেন মোঃ মঈনুল আহসান স্বাক্ষরিত এক নির্দেশনায় ঢাকা জেলাধীন সরকারী হাসপাতালসমূহে রোগীর সেবা সম্পর্কীয় ও স্বাস্থ্য বিষয়ক কর্মকান্ডের উপর ইলেক্ট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ায় কোনোপ্রকার তথ্য আদান-প্রদান ও মন্তব্য না দিতে বলা হয়েছে।

এতে বলা হয়, সিভিল সার্জনের এহেন নির্দেশনায় গণমাধ্যমকর্মীরা ক্ষুব্ধ ও বিস্মিত। এ ধরনের নির্দেশনা অবাধ তথ্য প্রবাহের পথে কেবল অন্তরায় নয়, এটি স্বাধীন সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে হস্তক্ষেপ এবং স্বেচ্ছাচারিতার বহিঃপ্রকাশ।

বিবৃতিতে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ভয়াবহ রূপ নিয়ে সারাদেশে জনমনে এক আতংক অবস্থা বিরাজ করছে। একই সঙ্গে চিকিৎসা সেবা পাওয়া নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠাও সমভাবে বেড়ে চলেছে। এ পরিস্থিতিতে সম্মুখ সারির যোদ্ধা হিসেবে প্রিন্ট, ইলেক্ট্রনিক্স ও অনলাইন মিডিয়ার গণমাধ্যমকর্মীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়েই হাসপাতালগুলোর বিদ্যমান সক্ষমতা এবং স্বাস্থ্যসেবার নানা বিষয় তুলে ধরে সংকট মোকাবেলায় সরকারের নীতিনির্ধারকদের পরিকল্পনা প্রণয়নে সহায়তা করছে। অন্যদিকে সাধারণ জনগণকে সচেতন ও সাবধান করে তুলতে ভূমিকা রাখছে। পক্ষান্তরে মহামারীর শুরু থেকে স্বাস্থ্যখাতের একের পর এক অনিয়ম  ও কেলেংকারীর চিত্র প্রকাশ পেতে থাকে। যার জের ধরে মহান জাতীয় সংসদে সংসদ সদস্যরা ক্ষোভ ও উষ্মা প্রকাশ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করেছেন।

সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ মনে করেন, এ পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যখাতের অনিয়ম, অপকর্ম ও ব্যর্থতা ঢেকে রাখতেই তথ্য প্রদানে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। তারা অবিলম্বে এ নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে