স্কুল দপ্তরীকে মারপিট ও জাতীয় পতাকা অবমানার অভিযোগ

রবিবার, জানুয়ারি ১৬, ২০২২,১০:৪৯ অপরাহ্ণ
0
10

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

সৌরভ সোহরাব,সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি : নাটোরের সিংড়া উপজেলার ডাহিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের রাশিদুল(২৫) নামের দপ্তরী কাম প্রহরীকে মারপিট করে আহত ও জাতীয় পতাকা অবমাননার অভিযোগ উঠেছে ডাহিয়া গ্রামের স্কুল পাড়ার শের আলী মোল্লার ছেলে মহব্বত আলী(২০)এর বিরুদ্ধে।

শনিবার (১৫জানুয়ারী) সকাল ৯ টায় ডাহিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এঘটনা ঘটে। এসময় দিনমজুর আনোয়ার হোসেন(২৫) নামের আরও এক যুবক আহত হয়। আহত রাশিদুল ও আনোয়ার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন। এ ঘটনায় রবিবার দুপুরে (১৬জানুয়ারী) সিংড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই প্রতিষ্ঠানের সভাপতি মোঃ রফিকুল ইসলাম আন্ডু।

অভিযোগ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, ডাহিয়া স্কুল পাড়ার শের আলীর ছেলে মহব্বত আলী স্কুল কর্তৃপক্ষের নিষেধ অমান্য করে কিছু বখাটে ছেলে নিয়ে স্কুল মাঠে ব্যাটমিন্টন খেলা করতেন। ব্যাটমিন্টনের সরঞ্জামাদি থাকায় স্কুল চলাকালীন শিক্ষার্থীদের খেলা ধুলা ও চলাফেরার অসুবিধা হতো। স্কুল কর্তৃপক্ষ গাছ লাগানোর উদ্যোগ নিলে গত ১৩ জানুয়ারী আহত দিনমজুর আনোয়ারকে সাথে নিয়ে স্কুলের দপ্তরী রাশিদুল গাছ লাগানোর কাজে মাটি খুঁড়তে থাকে। এসময় ব্যাটমিন্টনের বাঁশ ও জাল সরাইতে বল্লে প্রতিপক্ষ চরম ক্ষিপ্ত হয়ে রাশিদুল ও দিনমজুর আনোয়ারকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং দেখে নিবো বলে হুমকি দিয়ে চলে যায়। এরই জের ধরে ঘটনার দিন শনিবার (১৫জানুয়ারী) সকালে দপ্তরী রাশিদুল স্কুলের পতাকা উত্তোলনের সময় প্রতিপক্ষ মহব্বত এবং তার পিতা শের আলী সহ দুই চাচাকে নিয়ে লোহাড় রড় ও বাঁশের লাঠি দিয়ে রাশিদুলকে মারপিট করতে থাকে। এসময় হামলাকারীরা রাশিদুলের কাছ থেকে পতাকা ছিনিয়ে নিয়ে ছিড়ে ফেলে দেয়। রাশিদুলের চিৎকারে দিন মজুর আনোয়ার এগিয়ে আসলে তাকেও তারা মারপিট করে। পরে লোকজন এসে ওই দুইজনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করিয়ে দেন।

এঘটনায় রবিবার(১৬ জানুয়ারী) দুপুরে মহব্বত ও তার পিতা সহ দুই চাচাকে অভিযুক্ত করে সিংড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী রাশিদুলের পিতা এবং ওই স্কুলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম আন্ডু।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ আলী আশরাফ বলেন, এবিষয়ে ওই প্রতিষ্ঠানের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের কাছ থেকে লিখিত আবেদন পেয়েছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আবেদনটি জেলা শিক্ষা অফিসে প্রেরণ করা হয়েছে।
অভিযুক্ত মহব্বত আলী বলেন, পতাকা ছিড়ে ফেলার অভিযোগ সর্ম্পুণ মিথ্যা ও বানোয়াট। আমি আর আমার পরিবার গত ২৬ ডিসেম্বর ইউপি নির্বাচনে নবর্নিবাচিত মেম্বর রুবেলের তালা প্রতীকে ভোট করায় পরাজিত প্রতিপক্ষ মেম্বর প্রার্থী আমার বিরুদ্ধে এসব মিথ্যা অভিযোগ আনছেন।

সিংড়া থানা অফিসার ইনর্চাজ নুর-এ আলম সিদ্দিকী বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে