সিএমএসএমই খাতের ঋণ বিতরণে অক্টোবর পর্যন্ত সময় পেল ব্যাংক

মঙ্গলবার, আগস্ট ১৮, ২০২০,২:৫০ অপরাহ্ণ
0
4

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

বাংলাদেশ ব্যাংক আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছে মহাম‌ারি ক‌রোনায় ক্ষ‌তিগ্রস্ত কটেজ মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প (সিএমএসএমই) খা‌তের জন্য ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের ঋণ বিতরণ সম্পন্ন করতে।

গতকাল সোমবার ব্যাংক এবং নন-ব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর (এনবিএফআই) সঙ্গে এক ভার্চ্যুয়াল বৈঠকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির সভাপতিত্বে বৈঠকে ১৫টি বাণিজ্যিক ব্যাংক এবং চারটি এনবিএফআইয়ের এমডি ও প্রধান নির্বাহীরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, বিভিন্ন মহল থেকে অভিযোগ আসছে যে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো সিএমএসএমই তহবিল থেকে ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে সহযোগিতা করছে না। এজন্য গভর্নর আজকে ১৫টি ব্যাংক ও চারটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের এমডি ও নির্বাহীদের সঙ্গে বৈঠক করেন। 

এ সময় ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর পক্ষ থেকে ঋণ বিতরণের জন্য আগামী ৩১ আগস্টের পরিবর্তে ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় চাওয়া হয়। কিন্তু গভর্নর ডিসেম্বর পর্যন্ত না বাড়িয়ে, ঋণ বিতরণ সম্পন্ন করতে চলতি বছরের ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত সময় বেঁধে দেন। যার যার টার্গেট রয়েছে তাদের নির্ধারিত সময়ে ঋণ বিতরণ সম্পন্ন করতে বলা হয়।

করোনাভাইরাসের ক্ষতি মোকাবেলায় বিভিন্ন খাতে প্রায় এক লাখ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করে সরকার। এর মধ্যে সিএমএসএমই খা‌তের ক্ষতিগ্রস্ত উদ্যোক্তাদের জন্য ২০ হাজার কোটি টাকার তহবিল অন্যতম। এ তহবিলের ঋণের সুদ ৯ শতাংশ হিসাব করা হলেও ঋণগ্রহীতাদের দিতে হবে ৪ শতাংশ সুদ।

অবশিষ্ট ৫ শতাংশ সুদের অর্থ সরকার ভর্তুকি আকারে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকগুলোকে দিয়ে দেবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যানুযায়ী, গত জুলাই পর্যন্ত এ তহবিল থেকে মাত্র ২ হাজার কোটি টাকা বিতরণ হয়েছে। এদিকে সিএমএসএমই খাতের ঋণ বিতরণে উৎসাহিত করতে ইতিমধ্যে নীতিমালার বিভিন্ন শিথিল করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে