সিংড়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থী মামুনের বিজয় মিছিল, ফুল দিতে গিয়ে উত্তেজনা

বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৭, ২০২০,১:২২ অপরাহ্ণ
0
13

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

সৌরভ সোহরাব,সিংড়া(নাটোর) প্রতিনিধি: নাটোরের সিংড়ায় মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী সিরাজুল মজিদ মামুন সমর্থকদের বিজয় মিছিল নিয়ে শহীদ মিনারে ফুল দিতে গিয়ে অপর পক্ষ ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান এম এম আবুল কালাম সর্মথকদের সাথে বাকবিতণ্ডা ও উত্তেজনার ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে মামুন সমর্থক।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়,বিজয় দিবস উপলক্ষে নৌকার মনোনয়ন প্রার্থী সিরাজুল মজিদ মামুন প্রায় ২ হাজার সমর্থক নিয়ে বুধবার সকাল ৯টায় বিয়াশ চার মাথা মোড় থেকে একটি বিজয় মিছিল নিয়ে বিয়াশ উচ্চ বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার অভিমুখে রওনা হয়। মিছিলটি শহীদ মিনারে গিয়ে থামে। এসময় কালাম চেয়ারম্যানের সর্মথকরা শহীদ মিনারে অবস্থান করছিল। পরে চেয়ারম্যান সমর্থকের কয়েকজন মামুন সমর্থকদের একই সাথে শহীদ মিনারে ফুল দেওয়ার আহবান করলে মামুন সর্মথকরা এক সাথে ফুল না দিয়ে পাশে দাড়িয়ে থাকে। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে বাক দ্বন্দিতা ও উত্তেজনার ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে শহীদ মিনারে দাড়িয়ে স্থানীয় ওর্য়াড আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক,ইউপি সদস্য তারেক হোসেন দুলাল এবং চেয়রাম্যান ও মামুন সবাইকে শান্ত হতে বলেন।

এঘটনায় মামুন সমর্থকরা শহীদ মিনার চত্বর ত্যাগ করে খোলা বাড়িয়া বিয়াশ টেকিনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজে প্রতিবাদ সমাবেশ করে। এসময় বক্তব্য রাখেন,ডাহিয়া ইউনিয়ন আ,লীগের সহ সভাপতি নজরুল ইসলাম,ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি বকুল হোসেন,১নং ওর্য়াড আ.লীগের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম আন্ডু,২নং ওর্য়াড আ,লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন,৩নং ওর্য়াড সভাপতি ও ইউপি সদস্য আকবর হোসেন,৪নং ওয়ার্ডের সভাপতি সাইফ মাহমুদ,৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য কামাল হোসেন,৬নং ওর্য়াডের সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম সহ অন্যান্য মামুন সমর্থক নেতা কর্মী। বক্তারা ঘটনার তীব প্রতিবাদ ও নিন্দা জানান।

সমাবেশে সিরাজুল মজিদ মামুন বলেন,আজকের ঘটনা দুঃখজনক। আমার নেতা জুনাইদ আহমেদ পলক একজন শান্তি প্রিয় মানুষ। আমি সেই ধারার অনুসারী। নৌকার মনোনয়ন না পেলে এবং চেয়ারম্যান না হলেও জনগণের পাশে যেভাবে আছি আগামীতেও সেভাবেই থাকবো। এঘটনায় চেয়ারম্যান এমএম আবুল কালাম বলেন, আমাদের দুইজনের মধ্যে কোন বিরোধ নাই। আমরা যদি বিরোধ করি ডাহিয়া ইউনিয়ন আ.লীগ যদি দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে যায় তাহলে আগামী নির্বাচনে নৌকাকে বিজয়ী করা যাবে না। আমি মামুনকে তৈরী করেছি একজন মুজিব সৈনিক হিসাবে।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে