‘সাংবাদিক ও গণমাধ্যমের টুঁটি চেপে ধরে সরকারের সীমাহীন ব্যর্থতা ঢেকে রাখা যাবে না’

বুধবার, মে ৬, ২০২০,৩:২৮ অপরাহ্ণ
0
11

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

রাষ্ট্রচিন্তার সংগঠক দিদারুল ভূঁইয়া, কার্টুনিস্ট কিশোর, লেখক মোস্তাক, সাংবাদিক কাজলসহ গ্রেপ্তারকৃতদের অবিলম্বে মুক্তির দাবি করেছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। বুধবার এক বিবৃতিতে বাম জোটের সমন্বয়ক বজলুর রশীদ ফিরোজসহ কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ বলেছেন, সাংবাদিক ও গণমাধ্যমের টুঁটি চেপে ধরে সরকারের সীমাহীন ব্যর্থতা ঢেকে রাখা যাবে না। তাই তাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের সকল মামলা বাতিল করতে হবে।

বিবৃতিতে তীব্র নিন্দা, ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানিয়ে বাম জোট নেতৃবৃন্দ বলেন, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সুপারিশ যেমন মানছে না, তেমনি সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের কাজের চূড়ান্ত সমন্বয়হীনতা এবং দায়িত্বহীন অপরিণামদর্শী সিদ্ধান্তের ফলে দেশে করোনা সংক্রমণে ঝুঁকি ক্রমাগত বেড়ে চলছে। কারখানা, দোকানপাট, শপিংমল খুলে দেওয়ায় এরই মধ্যে সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। 

তারা আরো বলেন, সরকার যেমন করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে চরমভাবে ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছে, তেমনি করোনা দুর্ভোগে পড়া জনগণের জন্য বরাদ্দকৃত ত্রাণের চাল চুরির ঘটনার খবর প্রতিদিনই গণমাধ্যমে প্রকাশিত হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি সত্ত্বেও চুরি থামছে না। এরই মধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী ৫৪ জন জনপ্রতিনিধিকে ত্রাণ চুরির অভিযোগে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে, এদের প্রায় সকলেই সরকার দলীয় লোক।

বিবৃতিতে বলা হয়, সরকারের ক্রমবর্ধমান এই ব্যর্থতা ও ত্রাণ চুরির খবর ঢেকে রাখতেই নাগরিকদের মুক্ত চিন্তা, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ও সংবাদপত্র-সাংবাদিকতার টুঁটি চেপে ধরতে কুখ্যাত নিবর্তনমূলক আইন ব্যবহার করে মিথ্যা মামলা দিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমের সম্পাদক, সাংবাদিক, কার্টুনিস্ট, লেখক ও নাগরিকদের হয়রানি, গ্রেপ্তার ও অপহরণের মতো ঘটনা ঘটিয়ে চলছে। কিন্তু এতে সরকারের শেষ রক্ষা হবে না।

বিবৃতিতে সরকারের দমন-পীড়ন ও স্বৈরাচারী ফ্যাসিস্ট আচরণের বিরুদ্ধে সকল বাম-প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক শক্তি-ব্যক্তিকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে