সন্ত্রাস, মাদক, জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতি বিরোধী সমাবেশ সফল করার আহবান চসিক মেয়রের

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ৩০, ২০২০,১:২১ অপরাহ্ণ
0
6

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

সন্ত্রাস,মাদক,জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতি বিরোধী সমাবেশ উপলক্ষে স্মরণকালের সবচেয়ে বড় সমাবেশ আয়োজনের উদ্যোগ নিয়েছে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন(চসিক)। ঐতিহাসিক লালদীঘি ময়দানে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে ৬ই ফেব্রুয়ারি ২০২০ইং বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায়। অনুষ্ঠানে মাদক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও পুলিশ কমিশনার সন্ত্রাস,মাদক,জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতি বিরোধী এই সমাবেশে অতিথি হিসেবে থাকবেন। আজ বৃহস্পতিবার সকালে সিটি কর্পোরেশন কনফারেন্স হলে এই সিদ্ধান্ত গ্রহন করে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন। চসিক কাউন্সিলর,সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের নিয়ে অনুষ্ঠিত এ সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ¦ আ.জ.ম.নাছির উদ্দীন। সভায় উপস্থিত ছিলেন প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, মিসেস জোবাইরা নার্গিস খান, তৈাফিক আহমদ চৌধুরী, মোহাম্মদ সাহেদ ইকবাল বাবু, কফিল উদ্দিন খান, মোহাম্মদ মোবারক আলী, মো. মোরশেদ আলম, মো. জহুর আলম জসিম, মো. ছাবের আহমদ, মো. হোসেন হিরন, এ এফ কবির আহমদ মানিক, মো. গিয়াস উদ্দিন, সাইয়েদ গোলাম হায়দার মিন্টু, মো. ইয়াছিন চৌধুরী আশু, শৈবাল দাশ সুমন, মো. সলিম উল্লাহ, নাজমুল হক ডিউক, এইচ এম এরশাদুল্লাহ, মো. আবুল হাসেম, এইচ এম সোহেল, মো. আবদুল কাদের, গোলাম মোহাম্মদ জোবায়ের, মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী, তারেক সোলায়মান সেলিম, জহর লাল হাজারী, হাসান মুরাদ বিপ্লব,মো. ইসলাইল বালী, হাজী নুরুল হক, জাহাঙ্গীর আলম, মো. শফিউল আলম, মো. জয়নাল আবেদীন, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিসেস জেসমিন পারভিন জেসি, আবিদা আজাদ, মনোয়ারা বেগম মনি, ফারজানা পারভিন, আঞ্জুমান আরা বেগম, ফারহানা জাবেদ, জেসমিনা খানম, ফেরদৌসী আকবর, আফরোজা কালাম ও শাহানুর বেগম, চসিক নির্বাহী ম্যাজিস্টেট আফিয়া আকতার, মেয়রের একান্ত সচিব মো. আবুল হাশেম প্রমুখ। সভায় সিটি মেয়র বলেন এই সমাবেশ হবে স্মরণকালে সবচেয়ে বড় সমাবেশ।

নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর,সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের নেতৃত্বে ব্যানার,প্লে-কার্ড ও পেস্টুন নিয়ে এ সমাবেশে যোগদান করবে নগরবাসি। সুশৃংখল সমাবেশ অনুষ্ঠানের বিষয়ে কাউন্সিলরদের দায়িত্ব দেন সিটি মেয়র। এই সমাবেশকে ঘিরে লালদীঘি আশপাশের এলাকায় লাগানো হবে বিপুল সংখ্যক মাইক। লালদীঘির দক্ষিণে কোতোয়ালী, উত্তরে আন্দরকিল্লা,পুর্বে শাহ আমানত (রা) মাজার এবং পশ্চিমে সিনেমা প্যালেস পর্যন্ত মাইক লাগানো এবং এলইডি স্কিন বাসানো হবে। তিনি আরো বলেন, আড়াই ঘন্টার এই সমাবেশটি সার্বক্ষণিক ড্রোন ক্যামরার মাধ্যমে নজরদারি করা হবে। এই প্রসঙ্গে সিটি মেয়র কতিপয় নিদের্শনা প্রদান করেন। এই নিদের্শনা অনুযায়ি লালদীঘির ময়দানের ভেতরের অংশ ৭ হাজার চেয়ার বসানো হবে। এতে আগত মহিলারা,ওয়ার্ডের মুরুব্বি এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিবৃন্দের জন্য নির্ধারিত আসন থাকবে। আগত মিছিলে শ্লোগান হবে “মাদক,সন্ত্রাস,জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতিকে না বলুন, সুন্দর চট্টগ্রাম গড়ে তুলুন”,“উন্নয়নের স্বার্থে ধারাবাহিকতার বিকল্প নেই”। মিছিলে,সমাবেশে কোনো ব্যক্তির নামে, কিংবা রাজনীতিক কোনো শ্লোগান দেয়া যাবে না বলে তিনি সকলকে সর্তক করে দেন।

এ সমাবেশের মাধ্যমে নগরবাসি জানিয়ে দিতে চাই সন্ত্রাস,মাদক,জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধের কথা উল্লেখ করে সিটি মেয়র বলেন ২০১৭ সালে যে উদ্দেশ্য নিয়ে সন্ত্রাস,মাদক,জঙ্গিবাদ ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন উদ্যোগ নিয়েছে,তা নিস্ফল হয়নি,বরং সফল হয়েছে। এর মাধ্যমে নগরবাসি মাদক,সন্ত্রাস,জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে এগিয়ে এসেছে। চসিকের এ ধারাবাহিক সমাবেশের আগে রাস্তা ঘাটে সন্ত্রাস,মাদক সেবিদের যেভাবে উৎপাত দেখা দিয়ে ছিল,তা অনেকাংশে হ্রাস পেয়েছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। তিনি অনুষ্ঠিতব্য সমাবেশকে সুন্দর,সুশৃংখল এবং সফল করার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে