শ্রীমঙ্গলের সরকারি অফিসসমূহের ওয়েব পোর্টালগুলো হালনাগাদের সুপারিশ সনাকের

বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০২১,১০:৫৪ অপরাহ্ণ
0
7

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

সৈয়দ আরমান জামী, বিশেষ প্রতিনিধি : শ্রীমঙ্গল উপজেলার সরকারি অফিসসমূহের ওয়েব পোর্টালগুলো হালনাগাদ করার সুপারিশ করেছে সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক)। 

অদ্য বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১) দুপুরে টিআইবি’র শ্রীমঙ্গল কার্যালয়ে এ সংক্রান্ত পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদন-২০২১ প্রকাশ করে। এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনটি প্রকাশ করেন শ্রীমঙ্গলস্থ সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), টিআইাবি’র এরিয়া কো-অর্ডিনেটর পারভেজ কৈরী।প্রতিবেদনে বলা হয়,অবাধ তথ্য প্রবাহের লক্ষ্যে সরকার অনলাইন ভিত্তিক জাতীয় তথ্য ভান্ডার তৈরি এবং ওয়েবপোর্টালের মাধ্যমে তথ্য প্রকাশের ব্যবস্থাসহ নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯ বাস্তবায়নের প্রধান অংশীজন হলো জনগণ ও সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষ। তবে আরও ব্যাপকভাবে নিজেদের সেবা সংক্রান্ত বিভিন্ন হালনাগাদ তথ্য যেমন – সেবার মূল্য, সেবাপ্রাপ্তির সময়, পদ্ধতি ইত্যাদি স্বপ্রণোদিতভাবে প্রকাশ করলে একদিকে যেমন প্রতিষ্ঠানের সেবার মান বাড়বে, পাশাপাশি স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সংস্কৃতিও গড়ে উঠবে। সরকারের রূপকল্প ২০২১ বাস্তবায়নের সহায়ক হিসেবে বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন এর আওতায় সকল জেলার স্বাস্থ্য, শিক্ষা, স্থানীয় সরকার ও কৃষিসেবাসহ বিভিন্ন বিষয়ে তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। 

জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়নভিত্তিক এই ওয়েব পোর্টালের মাধ্যমে সেবা সম্পর্কিত তথ্য নিয়ে জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছানো সম্ভব। জনগণকে তথ্য প্রদান করে ক্ষমতায়নের মাধ্যমে অনেক ক্ষেত্রেই দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে। কিন্তু সরকারের এই উদ্যোগসমূহের পূর্ণাঙ্গ সুফল জনগণ এখনও পাচ্ছে না। ওয়েব পোর্টালের মাধ্যমে জনগণের প্রয়োজনীয় তথ্যের সুফল পাওয়ার ক্ষেত্রে তথ্য হালনাগাদসহ জনসচেতনতার লক্ষ্যে কার্যকর প্রচারণা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধান তথ্য কমিশনার জনাব মরতুজা আহমদ বিষয়টি উপলব্ধি করে গত বছর (৩০ জানুয়ারি ২০২০ তারিখে) উপজেলা প্রশাসন ও সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), শ্রীমঙ্গল এর যৌথ আয়োজনে এবং দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) হবিগঞ্জ এবং উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি (দুপ্রক)-এর সহযোগিতায় শ্রীমঙ্গলে আয়োজিত তথ্যমেলায় উপস্থিত থেকে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের ওয়েবপোর্টালে অন্তর্ভুক্ত সরকারি অফিসসমূহের তথ্য হালনাগাদ করার নির্দেশনা প্রদান করেন।

কার্যকর তথ্য প্রকাশ ও প্রচার ব্যবস্থা অনিয়ম ও দুর্নীতি হ্রাস করার মাধ্যমে জনগণের হয়রানি প্রতিরোধসহ সেবাখাতসমূহে সুশাসন নিশ্চিত করতে পারে বলে তিনি উল্লেখ করেন। এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে গত বছরের ন্যায় এবারও সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), শ্রীমঙ্গল উপজেলার অধীনে বিদ্যমান সরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহের ওয়েব পোর্টালগুলোর বর্তমান অবস্থা পর্যবেক্ষণ কার্যক্রমটি পরিচালনা করে।           

জাতীয় তথ্য বাতায়নের অর্ন্তভুক্ত শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রশাসনের ওয়েবপোর্টালের (http://sreemangal.moulvibazar.gov.bd/) অধীনে মোট ৩৯টি পোর্টাল বিদ্যমান। পোর্টালগুলোতে প্রতিষ্ঠানভিত্তিক তথ্য প্রকাশের ধরনের যেমন ভিন্নতা রয়েছে তেমনি তথ্য প্রকাশের কিছু সাধারণ বিষয় রয়েছে, যেগুলো সকল ওয়েবপোর্টালেই বিদ্যমান। যেমন: নোটিশ বোর্ড, খবর, অফিস প্রধানের তথ্য, কর্মকর্তা/কর্মচারীর তথ্য, সেবাসমূহের তথ্য, দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ডিও) সংক্রান্ত তথ্য ও যোগাযোগ। এসকল সাধারণ তথ্যগুলো পর্যবেক্ষনের আওতাভুক্ত হয়েছে। সনাক শ্রীমঙ্গল এই ৭ টিঁ ইন্ডিকেটর নিয়ে গত ছয় মাসের হালনাগাদ তথ্য পর্যবেক্ষণ করেছেন। পর্যবেক্ষণটিতে শ্রীমঙ্গল উপজেলার সরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহের ওয়েবসাইটে/পোর্টালে প্রদর্শিত তথ্য হালনাগাদের বর্তমান অবস্থা সরাসরি যাচাইয়ের মাধ্যমে সম্পন্ন করা হয়েছে। 

গত ৫-১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখ দুপুর ১২টা পর্যন্ত উক্ত পর্যবেক্ষণ কার্যক্রমটি পরিচালনা করা হয়েছে । সনাক সভাপতি দ্বীপেন্দ্র ভট্টাচার্য কর্তৃক স্বাক্ষরিত চুড়ান্ত প্রতিবেদনটি আজ বৃহস্পতিবার (১৬ সেম্টেম্বর ২০২১) উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর নিকট প্রেরন করা হয়েছে। পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, নোটিশ বোর্ড, খবর, অফিস প্রধানের তথ্য, কর্মকর্তা/কর্মচারীর তথ্য, সেবাসমূহের তথ্য, ডিও (দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) সংক্রান্ত তথ্য ও যোগাযোগ – এ ৭টি বিষয়ের আলোকে ৩৯টি ওয়েবপোর্টাল চেকিং/যাচাই করে মাত্র ১টি ওয়েবপোর্টালে শতভাগ তথ্য পাওয়া গিয়েছে। অন্যদিকে ৩৯ টির মধ্যে ২টি ওয়েবপোর্টালে উল্লিখিত বিষয়সমূহে কোনো ধরনের তথ্য পাওয়া যায়নি অর্থাৎ হালনাগাদের হার ০%। বাকি ৩৭টির মধ্যে ২৩টি ওয়েবপোর্টালে উল্লিখিত ৭টি বিষয়ে ৫০% এর কম তথ্য হালনাগাদ আছে।                 

তথ্য অধিকার আইন ২০০৯ অনুযায়ী দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ডিও) সম্পর্কিত তথ্য পাওয়া গিয়েছে ৩৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে মাত্র ১২টি ওয়েবপোর্টালে। এছাড়া ৩৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে অফিস প্রধানের তথ্য ১৪ টি, কর্মকর্তা/কর্মচারীর তথ্য ৩২টি, সেবাসমূহ ১২ টি, যোগাযোগ ২২টি, খবর মাত্র ১টি, নোটিশ বোর্ড মাত্র ১টি প্রতিষ্ঠানের তথ্য হালনাগাদ পাওয়া গেছে। সুপারিশসমূহ: সনাক শ্রীমঙ্গলের সম্মানিত সভাপতি জনাব দ্বীপেন্দ্র ভট্টাচার্য উপজেলার ওয়েব পোর্টাল সমূহ হালনাগাদ করার জন্য সনাকের পক্ষ থেকে নিম্নলিখিত সুপারিশ সমূহ তুলে ধরেন। 

১.ওয়েবপোর্টালগুলোর হালনাগাদ তথ্য নিশ্চিত করার জন্য কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করা। এ ক্ষেত্রে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিস থেকে চিঠি ইস্যু করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের ওয়েবপোর্টাল শতভাগ হালনাগাদের সময়-সীমা নির্ধারণ করা এবং কার্যকর ফলোআপ চলমান রাখা।  

২.তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯ অনুযায়ী তথ্য প্রদানের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নাম, পদবি, ফোন, ই-মেইল ওয়েবপোর্টালের হোমপেজে নিয়মিত হালনাগাদ রাখার জন্য বিশেষভাবে নির্দেশনা প্রদান করা।

৩.পরিবর্তনযোগ্য তথ্যগুলো নিয়মিত হালনাগাদ রাখতে মাসে একাধিকবার ওয়েবপোর্টাল ভিজিট করার জন্য সংশ্লিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে নির্দেশনা প্রদান করা।

৪.যেসকল প্রতিষ্ঠানের জাতীয় তথ্য বাতায়নের পোর্টাল ছাড়া স্বতন্ত্র ওয়েব সাইট রয়েছে তাদেরকে উক্ত স্বতন্ত্র ওয়েব সাইটটির লিঙ্ক জাতীয় তথ্য বাতায়নে বিদ্যমান নিজস্ব পোর্টালের হোম পেজে যুক্ত করা। 

৫.খবর ও নোটিশ বোর্ডে অনেক অফিসের ওয়েব পোর্টালে ২০১৭ সালের পর আর কোন হালনাগাদ তথ্য সংযুক্ত হয় নাই, তাই হালনাগাদ তথ্য আপলোড করার জন্য বিশেষভাবে নির্দেশনা প্রদান করা। ৬.ওয়েব পোর্টালকে জনগণের জন্য কার্যকর করতে জনসম্প্রচার বৃদ্ধি করা। 

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে