শহীদদের জীবনের বিনিময়ে অর্জিত এই দেশ আমাদের জন্য আমানতস্বরূপ

বুধবার, ডিসেম্বর ১৬, ২০২০,১২:০৬ অপরাহ্ণ
0
84

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

আজ ১৬ ডিসেম্বর। গৌরবময় ইতিহাস ঘেরা বাংলাদেশের বিজয় দিবস। ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) ৯ মাসের মুক্তিযুদ্ধ শেষে ১৯৭১ সালের এই দিনে আত্মসমর্পণ করেছিল পাকহানাদার বাহিনী। অভ্যুদয় ঘটে চূড়ান্ত বিজয়ের মধ্য দিয়ে স্বাধীন রাষ্ট্র বাংলাদেশের।

আমাদের স্বাধীনতা অগণিত মানুষের আত্মত্যাগের ফসল। আমরা গভীর শ্রদ্ধায় স্মরণ করি মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের, যেসব নারী ভয়াবহ নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন, নবীন-প্রবীণ সকল শ্রেণীপেশার মানুষ যারা স্বাধীনতার জন্য সর্বস্ব বিলিয়ে দিয়েছেন তাঁদের।

আজ যে স্বাধীন বাঙলা আমরা পেয়েছি তা এমনি এমনি আমাদের অর্জিত হয় নি। বহু ত্যাগ- তিতিক্ষা ও জাতির সূর্যসন্তানদের জীবন বিসর্জনের পর এই স্বাধীনতা আমাদের অর্জিত হয়েছে।

একরাশ স্বপ্ন বুকে নিয়ে শুরু হয়েছিল স্বাধীন বাংলাদেশের যাত্রা। হাঁটি হাঁটি পা করে দেখতে দেখতে ৪৯ পেরিয়ে ৫০-এ পথচলা শুরু হবে স্বাধীন বাংলাদেশের। এই ৪৯ বছরের মধ্যে অনেক চড়াই-উতরাই মোকাবেলা করতে হয়েছে আমাদের। সকল বাধা বিপত্তি পার করে একটু একটু করে সম্বৃদ্ধি ও উন্নয়নের সোনার বাংলায় প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে বাংলাদেশ। এই দেশ লাখো শহীদদের জীবনের বিনিময়ে অর্জিত। তাঁদের জীবনের বিনিময়ে অর্জিত এই দেশ প্রত্যেক নাগরিকের জন্য আমানতস্বরূপ।

তবে হতাশার বিষয় এই যে, এখনো কিছু অপশক্তি দেশের এই অর্জনকে নস্যাৎ করার জন্য অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। বিভিন্নভাবে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করে স্বাধীন দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। একটি কুচক্রী মহল সর্বদায় ব্যতিব্যস্ত হয়ে থাকে দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য। খুব সূক্ষ্ম ও নিখুঁতভাবে তারা দেশের চলমান গতিশীলতাকে ব্যাহত করার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দিনের পর দিন।

একটি যৌক্তিক দাবি উত্থাপনের পর সেই দাবির বিপক্ষে দাঁড়িয়ে যাই বলেই স্বাধীনতার ৪৯ বছরেও আমাদের দেশের জন্য কিছু করতে পারিনি, তথা বাংলাদেশকে সোনার বাংলায় প্রতিষ্ঠা করতে পারিনি। দল মত নির্বিশেষে আমাদের উচিৎ যেকোনো যৌক্তিক দাবির সাথে একমত পোষণ করা। মনে প্রাণে বিশ্বাস করি যে ভালোবাসা-সম্প্রীতি ও মতবাদ নিয়ে বাংলাদেশের জন্ম হয়েছিল এবং বিজয়ের ইতিহাস রচনা হয়েছিল, একদিন সেই মতবাদ সত্যিকার অর্থেই প্রতিষ্ঠা লাভ করবে। সকল অন্যায়, অপবাদ ও অনিয়ম ধ্বংস হয়ে নতুন সূর্যের শুভসূচনা হবে।

এই নিবন্ধের লেখক : শাহরিয়ার আহমেদ, নির্বাহী সম্পাদক, মানব সংবাদ।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে