‘মাদক ও জঙ্গিবাদমুক্ত সমাজ গঠনে যুবকদের খেলাধুলায় সম্পৃক্ত করতে হবে’

সোমবার, অক্টোবর ১৯, ২০২০,৬:১৪ অপরাহ্ণ
0
4

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেছেন, আবহমান বাংলার ঐতিহ্যবাহী ও মনোজ্ঞ ক্রীড়া প্রতিযোগিতা হচ্ছে নৌকা বাইচ। যুব সমাজকে যত বেশি খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত করা যাবে সমাজ তত মাদক ও জঙ্গিবাদ মুক্ত থাকবে।  

        গতকাল পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের আয়োজনে রাঙ্গামাটি শহীদ মিনারস্থ কাপ্তাই লেকে শেখ রাসেল নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায়  মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

          মন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেল বাংলার অবহেলিত শিশুদের শান্তির প্রতীক। সেদিন ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরী স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র শেখ রাসেলও ঘাতকের বুলেট থেকে রক্ষা পায়নি। তারা বুঝতে  পেরেছিলো বেঁচে থাকলে তিনি বঙ্গবন্ধুর মতো আপোসহীন এবং বলিষ্ঠ নেতৃত্বের অধিকারী হতেন। 

          বেলা তিনটায় করোনা প্রতিরোধে সকল স্বাস্থ্য বিধি মেনে কাপ্তাই হ্রদের মধ্য টিলা হতে রাঙ্গামটি শহীদ মিনার পর্যন্ত শেখ রাসেল নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা-২০২০ অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিযোগিতায় মোট ৪টি ইভেন্ট আয়োজন করা হয়। বিভিন্ন ইভেন্টে পুরুষ ও মহিলা প্রতিযোগিসহ মোট দলের সংখ্যা ছিল ৪৪টি। পুরুষ সাম্পান প্রতিযোগিতায় ১৫টি দল, মহিলা কায়াক প্রতিযোগিতায় ১৭টি দল, পুরুষ বড় প্রতিযোগী দল ৭টি, মহিলা বড় প্রতিযোগী দল ৫টি অংশগ্রহণ করেছে। রাঙ্গামটি সদর ও দুর্গম এলাকা হতে বিপুল সংখ্যাক ক্রীড়ামোদী প্রতিযোগিতা উপভোগ করে।

          প্রতিযোগিতায় পুরুষ সাম্পানে ১ম স্থান অধিকার করেছে জলন্ত ত্রিপুরা, মহিলা কায়াক প্রতিযোগিতায় ১ম স্থান অধিকার করেছে তাপসী চাকমা, পুরুষ বড় বিভাগে ১ম স্থান অধিকার করেছে যুবরাজ ত্রিপুরা ও তার দল, মহিলা বড় বিভাগে ১ম স্থান অধিকার করেছে আলো ত্রিপুরা ও তার দল।

          এ সময় মন্ত্রী নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে