মদীনাতুল উলূম ইনস্টিটিউট মহিলা কামিল মাদ্রাসায় স্বেচ্ছাসেবক দলের কৃমির ঔষধ বিতরণ

বুধবার, মে ২৯, ২০১৯,১০:১৭ পূর্বাহ্ণ
0
788

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]


সালসাবিল ইসলাম: স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা গিভ বাংলাদেশ, প্রচেষ্টা ফাউন্ডেশন এবং প্রজেক্ট কম্বল  এর যৌথ উদ্যোগ- “Deworming Madrasah”প্রজেক্টে, এই রমজান মাসে ১০০০ জন মাদ্রাসার ছাত্র ছাত্রী কে কৃমির ঔষধ খাওয়ানোর উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। তারই অংশ হিসেবে গত ২৫/০৫/২০১৯ তারিখ ঢাকার তেজগাঁও তেজতুরি পাড়ায় অবস্থিত ইসলাম মিশন কর্তৃক পরিচালিত মদীনাতুল উলূম ইনস্টিটিউট মহিলা কামিল মাদ্রাসার ৩৬০ জন ছাত্রী কে ঔষধ সেবন করায় সংস্থাগুলোর স্বেচ্ছাসেবক দল। এর আগে রাজধানীর খিলগাঁও ও উত্তরার আরো দুটি মাদ্রাসার ছাত্রদের ঔষধ খাওয়ানো হয়।

শুরুতেই একটি ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হয়, যেখানে ছাত্রীদের সামনে উপস্থাপন করা হয় মানবদেহে কৃমি প্রবেশের উপায়, প্রবেশ পরবর্তী সমস্যা, করনীয় এবং কৃমির ঔষধ এর উপকারিতা সম্পর্কে। তাদের শেখানো হয় কি কি ঘরোয়া খাবার খেয়ে কৃমি সংক্রমন এর হার কমানো যায়, পাশাপাশি প্রতিদিনের  অভ্যাসের কি কি পরিবর্তন তাদের সুস্থ থাকতে সাহায্য করবে তাও শেখানো হয়। নিয়মিত নখ কাটতে হবে, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন হয়ে থাকতে হবে, খালি পায়ে না হাঁটা যাবেনা, পরিষ্কার পানি পান করতে হবে- এই বিষয় গুলো তুলে ধরা হয় বিশেষ গুরুত্ব সহকারে।

এরপর আসে ইফতার এর সময়। সেচ্ছাসেবক দলের সদস্যরা অত্যন্ত যত্ন সহকারে মাদ্রাসার ৩৬০ জন ছাত্রীর হাতে তুলে দেন মানসম্মত ইফতার। ইফতার শেষে ছাত্রীদের সেবন করানো হয় কৃমির ঔষধ। আট বছর বয়স পর্যন্ত ছাত্রীদের সিরাপ খাইয়ে দেওয়া হয়। সাত দিন পর আরেকটি ঔষধ খাওয়ার নির্দেশনা দিয়ে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের হাতে ঔষধ তুলে দেওয়ার মাধ্যমে হয় সেদিনের কার্যসমাপ্তি।সফল ভাবে একটি পরিকল্পনার সমাপ্তি হওয়ার আনন্দ বুকে নিয়ে  স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্যরা পা বাড়ায় নিজ নিজ গন্তব্যে।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে