ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চালকদের প্রতি চাঁদপুর পুলিশ সুপারের মানবিকতা

শুক্রবার, আগস্ট ৬, ২০২১,১১:৪৫ অপরাহ্ণ
0
16

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

চাঁদপুর শহরে কঠোর বিধিনিষেধে ট্রাফিক পুলিশের হাতে আটক হওয়া আড়াই শ’রও বেশি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চালকদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে মানবিক কারণে এসব অটোরিকশা ছেড়ে দেওয়া হয়। এ তথ্য জানিয়েছে, চাঁদপুর জেলা পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ।

এদিকে, দীর্ঘদিন পর অটোরিকশা হাতে পেয়ে চালকরা হাসি মুখে বাড়ি ফিরেন। খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, অটোরিকশাগুলো দীর্ঘদিন জেলা স্টেডিয়ামে পড়ে থাকার কারণে ব্যাটারিসহ অন্যান্য যন্ত্রাংশ অকেজো হওয়ার উপক্রম হয়। জেলা পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদের নজরে পড়ে বিষয়টি। এক পর্যায়ে তিনি ট্রাফিক পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে দিয়ে চালকদের খুঁজে বের করার দায়িত্ব দেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে একেক করে হাজির হয় ২৬১ জন অটোরিকশা চালক। পরে কাগজপত্র দেখে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাগুলো চালকদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

চাঁদপুরে ট্রাফিক পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম জানান, অটোরিকশাগুলো একান্ত মানবিক কারণে ছেড়ে দেওয়া হলেও চালকদের শর্ত দেওয়া হয়, কঠোর বিধিনিষেধ আরো যে কয়দিন চলবে এসব অটোরিকশা নিয়ে কেউ সড়কে নামবে না। তবে শর্ত ভঙ্গ করলে অটোরিকশা ফের আটক করা হবে।

এদিকে, জেলা পুলিশ সুপার মিলন মাহমুদ জানান, মানবিকতার সঙ্গে পুলিশ আইনের বিষয়টিও দেখছে। কঠোর বিধিনিষেধে অবাধে অটোরিকশা চলাচলে যাত্রীদের মাধ্যমে করোনার সংক্রমণ ছড়াতে পারে। অটোরিকশাগুলো আটক করা হয়েছিল সেই আশঙ্কা থেকেই।

অন্যদিকে, জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ জানান, এরইমধ্যে কর্ম হারানো অটোরিকশা চালকদের প্রধানমন্ত্রীর উপহার খাদ্য সহায়তা এবং নগদ অর্থ বিতরণ করা হয়েছে। 

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে