বিশ্ব পর্যটন দিবসে রাষ্ট্রপতির বাণী

রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০,১০:০৭ পূর্বাহ্ণ
0
17

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বিশ্ব পর্যটন দিবস-২০২০ উপলক্ষ্যে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন :

          “বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও বিশ্ব পর্যটন দিবস-২০২০ পালনের উদ্যোগকে আমি স্বাগত জানাই। এবছর বিশ্ব পর্যটন দিবসের প্রতিপাদ্য ‘Tourism and Rural Development’ অর্থাৎ ‘গ্রামীণ উন্নয়নে পর্যটন’ অত্যন্ত সময়োপযোগী হয়েছে বলে আমি মনে করি।

          বহুমাত্রিকতা ও ব্যাপ্তির কারণে পর্যটন শিল্প ইতোমধ্যে বিশ্বে একক বৃহত্তম সেবাখাত হিসাবে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে। প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে পর্যটনশিল্প অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ জাতীয় অর্থনীতিতে পর্যটনের রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ অবদান। বিশ্ব পর্যটন সংস্থা টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে গ্রামীণ জনগোষ্ঠীকে পর্যটনশিল্পে সম্পৃক্তকরণের ওপর গুরুত্বারোপ করেছে। আমি আশা করি, যথাযথ পরিকল্পনা, দক্ষ সম্পদব্যবস্থাপনা এবং স্থানীয় জনগণকে সম্পৃক্তকরণের মাধ্যমে বাংলাদেশের পর্যটনশিল্প উন্নতির শিখরে পৌঁছতে সক্ষম হবে।

          বাংলাদেশে পর্যটনশিল্পের বিকাশে অফুরন্ত সম্ভাবনা রয়েছে। এই সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে দেশের পর্যটনশিল্পের উন্নয়নে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগের পাশাপাশি গ্রামীণ জনগোষ্ঠীকে অংশগ্রহণের সুযোগ করে দিতে হবে। একই সাথে বিশ্বদরবারে দেশের পর্যটনশিল্পকে কার্যকরভাবে তুলে ধরতে হবে। আমি স্থানীয় কৃষ্টি, ঐতিহ্য ও মূল্যবোধকে সমুন্নত রেখে পর্যটনশিল্পের বিকাশের পাশাপাশি জাতীয় অর্থনৈতিক উন্নয়নের লক্ষ্যে পর্যটনসংশ্লিষ্ট সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসহ সকলকে একসাথে কাজ করার আহ্বান জানাচ্ছি।

          আমি ‘বিশ্ব পর্যটন দিবস-২০২০’ উপলক্ষ্যে গৃহীত সকল কর্মসূচির সার্বিক সাফল্য কামনা করি।  

জয় বাংলা।

খোদা হাফেজ, বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে