বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২০ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতির বাণী

শনিবার, জুলাই ১১, ২০২০,৫:৩৫ পূর্বাহ্ণ
0
6

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২০ উপলক্ষে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন:

          বিশ্বের অন্যান্য দেশের  ন্যায় বাংলাদেশেও বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস ২০২০ পালিত হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। এ বছর বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসের প্রতিপাদ্য ‘Putting the Breaks on COVID-19: How to Safeguard the Health and Rights of Women and Girls Now’ যা বাংলায় ভাবান্তর করা হয়েছে ‘মহামারি কোভিড-১৯ কে প্রতিরোধ করি, নারী ও কিশোরীর সুস্বাস্থ্যের অধিকার নিশ্চিত করি’। প্রতিপাদ্যটি আমাদের দেশ এবং বর্তমান বিশ্ব প্রেক্ষাপটে অত্যন্ত সময়োপযোগী ও যথার্থ হয়েছে বলে আমি মনে করি।

          বাংলাদেশ বিশ্বের ঘনবসতিপূর্ণ দেশগুলোর অন্যতম। ভূ-আয়তনের তুলনায় এদেশের জনসংখ্যা অনেক বেশি। এ বিশাল জনগোষ্ঠীর  দৈনন্দিন চাহিদা তথা খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, কর্মসংস্থান ও যোগাযোগ-সহ অন্যান্য অবকাঠামো নির্মাণ ও উন্নয়নের গতিধারা অব্যাহত রাখতে প্রতিনিয়ত ভূমি, পানি-সহ অন্যান্য প্রাকৃতিক সম্পদের ওপর মাত্রাতিরিক্ত চাপ পড়ছে। এতে একদিকে প্রাকৃতিক ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে, অন্যদিকে নানা প্রাকৃতিক দুর্যোগের ফলে জানমালের ক্ষতি-সহ উন্নয়ন ও অগ্রগতি বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এরই ফলশ্রুতিতে এ বছর মহামারি  কোভিড-১৯ এর কারণে বাংলাদেশসহ পুরো বিশ্ব বিপর্যস্ত। এ প্রেক্ষিতে জনসংখ্যাকে কাঙ্ক্ষিত মাত্রায় রেখে বিদ্যমান সম্পদের পরিবেশবান্ধব ও সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। জনসংখ্যাকে পরিণত করতে হবে জনসম্পদে। টেকসই উন্নয়নে পরিকল্পিত ও দক্ষ জনসংখ্যার গুরুত্ব অপরিসীম।

          বর্তমানে  কোভিড-১৯ কে ভয় না করে সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। বিশেষ করে মহামারির এ সময় গর্ভবতী নারী সন্তান প্রসব-সহ প্রসব পূর্ববর্তী ও প্রসব পরবর্তী সেবা যাতে ঠিকমতো পায় তা নিশ্চিত করতে হবে। সেই সাথে কিশোরীদের বয়ঃসন্ধিকালীন স্বাস্থ্যসেবা-সহ অন্যান্য সেবায় অগ্রাধিকার দিতে হবে। কিশোরী ও গর্ভবতী নারীরা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে তাদের দ্রুত সেবার আওতায় আনতে হবে। এ সময় কোডিভ-১৯ এর চিকিৎসা-সহ পরিবার পরিকল্পনা এবং মা-শিশু স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম আরো জোরদার করে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য একটি নিরাপদ মহামারি সহনশীল জাতি গঠনে আমাদের সদা প্রস্তুত থাকতে হবে। তাহলেই  দেশ আরো এগিয়ে যাবে, জাতি হিসেবে আমরা দেশকে বিশ্বের দরবারে উচ্চ মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত করতে সক্ষম হবো।

আমি বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২০ উপলক্ষে গৃহীত সকল কর্মসূচির সার্বিক সাফল্য কামনা করছি।

জয় বাংলা

খোদা হাফেজ, বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে