বিশ্ব খাদ্য দিবস উপলক্ষে ঢাকায় আলোচনা অনুষ্ঠান এবং আন্তর্জাতিক সেমিনার

মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৯, ২০২১,১০:৪৭ পূর্বাহ্ণ
0
8

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

বিশেষ প্রতিবেদক : বিশ্ব খাদ্য দিবস ২০২১ উপলক্ষে হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল,ঢাকায় “বিশ্ব খাদ্য দিবস ২০২১”-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এবং আন্তর্জাতিক সেমিনার-এর আয়োজন করা হয় কৃষি মন্ত্রণালয়, আইএফএডি(ইফাদ) এবং জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা(FAO)-র যৌথ উদ্যোগে। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালী যোগ দেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা, এমপি।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ ম রেজাউল করিম এমপি, মাননীয় মন্ত্রী, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়, মাননীয় খাদ্যমন্ত্রী সাধন চৌধুরী, এমপি। সভাপতিত্ব করেন কৃষিবিদ ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক এমপি, মাননীয় মন্ত্রী, কৃষি মন্ত্রণালয়।
অনুষ্ঠানের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন মোঃ মেসবাহুল ইসলাম, সিনিয়র সচিব, কৃষি মন্ত্রণালয়। অনুষ্ঠানে কৃষি মন্ত্রণালয় কর্তৃক নির্মিত একটি চমৎকার সংক্ষিপ্ত ভিডিও তথ্যচিত্র প্রদশর্ন করা হয় যেখানে চমৎকারভাবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে কৃষি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন ও সাফল্যের ধারাবাহিকতাসমুহ তুলে ধরা হয়েছে।

বিশেষ অতিথিবৃন্দ তাদের স্ব স্ব মন্ত্রণালয়ের বিগত বছর সমুহে মাছ-মাংস, ডিম – দুধ উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন, খাদ্য উৎপাদন, সংরক্ষণ, বিতরণ এবং খাদ্য নিরাপত্তায় এক অভাবনীয় অগ্রগতি সাধিত হয়েছে। উল্লেখ্য, কোভিড-১৯ মহামারীতেও বাংলাদেশের বর্ণিত ০৩টি মন্ত্রণালয়ের খাদ্য-শষ্যের উৎপাদন, পুষ্টি ও খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে কোন বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি।
দেশের কোথাও দেখা দেয়নি কোন দুর্ভিক্ষ। কোন মানুষকে অনাহারে থাকতে হয়নি।এমনকি না খেয়ে মরতে হয়নি কোন মানুষকে।
সভাপতির ভাষণে মাননীয় কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক এমপি মহোদয় গত ১৮ মাসের করোনা ভাইরাসের মহামারীর মধ্যেও বাংলাদেশের কৃষিতে অভাবনীয় সফলতা দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে অনেক এগিয়ে।
এমনকি পৃথিবীর অনেক উন্নত ও সমৃদ্ধশালী দেশের চেয়েও সন্তোষজনক অবস্থায় আছে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার যা আইএমএফ-এর রিপোর্ট অনুযায়ী ৩.৫ %-এর বেশি হয়েছে। ধান,গম,পাট,আলু, ফল ও সবজির উৎপাদন এবং রফতানি বৃদ্ধি পেয়েছে বহু গুনে।
এরপর FAO-এর Director General Mr.Qu Dongyu ” World Food Day 2021″ উপলক্ষে শুভেচ্ছা বক্তব্য প্রদান করেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা তাঁর ভাষণের পূর্বে বিএআরসি কর্তৃক প্রকাশিত ‘100 Years of Agricultural Development in Bangladesh ‘ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করেন। এরপর তিনি বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট ( বিআরআরআই) কর্তৃক শুধুমাত্র ধান দিয়ে তৈরী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিকৃতি দুটি প্রত্যক্ষ করেন এবং বিআরআরআই কর্তৃক উদ্ভাবিত ‘ বঙ্গবন্ধু ধান১০০’ এর শুভ উদ্বোধন করেন।

প্রধান অতিথির ভাষণে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমপি তাঁর ভাষণে খাদ্য উৎপাদন ও পুষ্টি নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে কৃষি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অভাবনীয় সফলতা ও অগ্রগতির জন্য কৃষি সম্প্রসারণকর্মী, কৃষি বিজ্ঞানীদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং সকল কৃষিবিদদেরকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানান।
তাই আজ কৃষিবিদরা মাথা উঁচু করে জোর গলায় বলতে পারছেঃ

“হে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু,
তোমার চির উন্নত শির উঁচু রেখেছি বারবার,
আজ তাই ২০২০ সালে তোমার জন্মশতবর্ষে,
সাড়ে ১৬ কোটি মানুষের সোনার বাংলায়,
ভাত-কাপড় আর মাছ-মাংসের
নেই কোন হাহাকার!
নেই কোন হাহাকার…!!”

দুপুরে নামাজের বিরতি ও মধ্যান্হ ভোজের পর অনুষ্ঠিত হয় ” মুজিব শতবর্ষে আন্তর্জাতিক সেমিনার ” বিষয়ে ২য় পর্বের কারিগরী অধিবেশন।
সেমিনার আহ্বায়কের সূচনা বক্তব্য প্রদান করেন ড. শেখ মোহাম্মদ বখতিয়ার, নির্বাহী চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিল ( বিএআরসি)। এরপর FAO কর্তৃক World Food Day 2021″ উপলক্ষে নির্মিত একটি বিশ্বব্যাপী সার্বজনীন চমৎকার ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়। তাছাড়া কারিগরী সেশন শুরুর পূর্বে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীর মাঝে ” বিশ্ব খাদ্য দিবস ২০২১ পোস্টার অংকন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে সার্টিফিকেট, অর্থ পুরস্কারসহ বইয়ের উপহার তুলে দেয়া হয়।

এরপর মূল প্রবন্ধ ভার্চুয়ালী উপস্থাপন করেন “বিশ্ব খাদ্য নায়ক পুরস্কার-২০২১”প্রাপ্ত ব্যাক্তিত্ব Dr.Lawrence Haddad, Executive Director, The Global Alliance for Improved Nutrition ( GAIN).
মূল প্রবন্ধের উপর আলোচনা করেন ড.তাহমিদ আহমেদ, নির্বাহী পরিচালক, আইসিডিডিআর, বি, এবং অধ্যাপক ড.খালেদা ইসলাম, পরিচালক, খাদ্য ও পুষ্টি বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। এরপর সরকারি কর্মসূচিতে প্রতিফলন বিষয়ে আলোচনা করেন যথাক্রমে মোঃ আসাদুল্লাহ, মহাপরিচালক, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এবং মোঃ তৌফিকুল আরিফ অতিরিক্ত সচিব, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়।
সম্মানিত অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন ড. আব্দুস সাত্তার মন্ডল, ইমেরিটাস প্রফেসর ও সাবেক উপাচার্য, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এবং Mr.Robert D. Simpson, Country Representative in Bangladesh, FAO.
উন্মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন বিসিএস ( কৃষি) ক্যাডারের সভাপতি ড. মোঃ আলী আফজাল, মির্জা মোফাজ্জল ইসলাম, ডিজি, বিনা, ড. সুরজিত সাহা রায়, পরিচালক, কৃষি তথ্য সার্ভিস (AIS), ড.মোঃ মাহবুবুল ইসলাম, পরিচালক(কারিগরী), বাংলাদেশ পাট গবেষণা ইনস্টিটিউট,ঢাকা।বিকাল ৫.৩০ ঘটিকায় আন্তর্জাতিক সেমিনারের প্রধান অতিথি কৃষিবিদ ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক এমপি, মাননীয় মন্ত্রী, কৃষি মন্ত্রণালয়, মহোদয় কর্তৃক কৃষি বিজ্ঞানী, কৃষক ও কৃষি সম্প্রসারণ কর্মীদের নিরলস অবদানে কৃষি খাতে অভূতপূর্ব উন্নয়ন, সাফল্য ও আগামীর কৃষি ভাবনা নিয়ে যুক্তি -তর্ক, তথ্য উপাত্ত সম্বলিত আকর্ষণীয় সুদীর্ঘ বক্তব্য প্রদান করেন এবং মো.মেসবাহুল ইসলাম, সিনিয়র সচিব, কৃষি মন্ত্রণালয়ের ধন্যবাদ জ্ঞাপনের মধ্য দিয়ে ২য় পর্বের অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়
দেশী-বিদেশী প্রতিনিধিবৃন্দের সাথে বিশেষ আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এবং আন্তর্জাতিক সেমিনারে যোগদান করেন কৃষিবিদ শেখ মোঃ মুজাহিদ নোমানী, “বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদক”প্রাপ্ত বিশিষ্ট সাংবাদিক, লেখক, উদ্ভাবক, উপ পরিচালক ও জেলা বীজ প্রত্যয়ন অফিসার( অবঃপ্রাপ্ত), এবং সিনিয়র সহ-সভাপতি, বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদকপ্রাপ্ত পরিষদ, বাংলাদেশ।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে