বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের মানবসম্পদে পরিণত করতে হবে

বুধবার, নভেম্বর ৯, ২০২২,২:২০ অপরাহ্ণ
0
9

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

ডেপুটি স্পিকার মো. শামসুল হক টুকু বলেছেন, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন প্রতিটি শিশুকে মানবসম্পদে পরিণত করতে হবে। তিনি বলেন, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুসহ সকল শিশুকে মানবসম্পদে পরিণত করে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার যাত্রায় তাদেরকে উন্নয়ন সহকারী হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। এ জন্য সকল সন্তানকে নিজের পরিবারের সদস্য মনে করে সমাজের সবাইকে সরকারের পাশাপাশি যথাযথ অবদান রাখতে হবে। বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদ (বাশিকপ) আয়োজিত বিশ্ব শিশু দিবস ও শিশু অধিকার সপ্তাহ-২০২২-এর সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন মো. শামসুল হক টুকু।

গতকাল মঙ্গলবার এ অনুষ্ঠানে ডেপুটি স্পিকার বলেন, মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুরাও জাতির পিতার ডাকে সাড়া দিয়ে সাধ্যানুযায়ী প্রত্যক্ষ ভূমিকা পালন করেন। স্বাধীনতার পরই বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুসহ সকল শিশু ও নারী-পুরুষ সবার সমান অধিকার প্রতিষ্ঠায় সংবিধানে কয়েকটি ধারা সংযুক্ত করা হয়।

তিনি আরো বলেন, জাতির পিতার দৌহিত্রী ও শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা হোসেন পুতুল অটিজম নিয়ে অসামান্য অবদান রাখায় সারাবিশ্বে প্রশংসিত হয়েছেন। সরকার শিশুদের অধিকার রক্ষায় ও তাদের মানবসম্পদে পরিণত করতে নানাবিধ ভূমিকা পালন করছে। সরকার বিশ্বাস করে ২০৪১ সালের মাধ্যে উন্নত দেশ গড়তে হলে শিশু-নারী-পুরুষ সবার অবদান রাখা প্রয়োজন।

এর আগে, মো. শামসুল হক টুকু ফিরোজা বারী শিশু হাসপাতালের হিমোফিলিয়া ওয়ার্ডসহ কয়েকটি ওয়ার্ড পরিদর্শন করেন। এ সময় তিনি জন্মগত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত শিশু ও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের মাধ্যমে রোগের উৎপত্তি ও চিকিৎসা ব্যবস্থার বিষয়ে খোঁজ খবর নেন। এছাড়া এ মহতী উদ্যোগকে সারাদেশে ছড়িয়ে দেওয়া প্রয়োজন মর্মে মন্তব্য করেন। অনুষ্ঠানে শিশু-কিশোরদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত, জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন এবং অনুষ্ঠানের শেষে শিশুদের উৎসাহ প্রদানের লক্ষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে