বিজ্ঞান জাদুঘর কর্তৃক ৪ প্রতিষ্ঠানকে টেলিস্কোপ হস্তান্তর

বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২১, ২০২২,১:৪৬ অপরাহ্ণ
0
11

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

“এ বিশ্ব ব্রহ্মান্ডের নিদর্শন জানতে বিজ্ঞানকে কাজে লাগাতে হবে।  মহান আল্লাহপাক কোরআনকে বিজ্ঞানময় বলেছেন। কোরআনে বিজ্ঞান শিক্ষার অনেক উপাদান আছে। চাঁদ হলো একমাত্র প্রাকৃতিক উপগ্রহ, যার আকর্ষণে পৃথিবীতে জোয়ার ভাটার সৃষ্টি হয়। চাঁদ নিয়েও গবেষণার অনেক বিষয় রয়েছে। পাখির আকাশে উড্ডয়ন, বিচরণ এবং শূন্যে স্থিতি রক্ষা সেটাও আল্লাহর বিজ্ঞান। এসব ঘটনা মানুষের জন্য শিক্ষণীয়।

আজ ২১ এপ্রিল  জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর কর্তৃক ৩ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও একটি বিজ্ঞানসেবী প্রতিষ্ঠানকে টেলিস্কোপ হস্তান্তর অনুষ্ঠানকালে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী এ কথা বলেন। প্রতিটি ৭০মিমি × ৪২০মিমি আকৃতির চীন থেকে আমদানীকৃত এসব টেলিস্কোপের সাহায্যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা সরাসরি চাঁদ অবলোকন করতে পারবে। এছাড়াও বিজ্ঞান জাদুঘর মহাজাগতিক অন্যান্য বস্তু পর্যবেক্ষণের জন্যও নিয়মিত আকাশ পর্যবেক্ষণের ব্যবস্থা রেখেছে।

এ উপলক্ষ্যে “পানির অপচয়রোধ” শীর্ষক এক বিজ্ঞান বক্তৃতার আয়োজন করা হয়। এতে শেরেবাংলা নগর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, টুইংক্যাল কিড্স গ্রামার স্কুল, মাইলস্টোন স্কুল অ্যান্ড কলেজ এর শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন। মহাপরিচালক মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী  ঢাকা শহরকে রক্ষার জন্য ভূগর্ভস্থ পানির ব্যবহার কমিয়ে বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ করে তার পুনর্ব্যবহারের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি বলেন, পানির অপচয়রোধ করাও ইসলামের শিক্ষা। পানির অপচয় ও খাদ্যের অপচয় বন্ধে রমজানের শিক্ষা কাজে লাগাতে হবে।

অনুষ্ঠান শেষে তিনটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং বাংলাদেশ বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতিকে মোট ৪টি টেলিস্কোপ উপহার প্রদান করা হয়। এ অনুষ্ঠানে বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ সমিতির সভাপতি মুনীর হাসান বলেন, “বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে টেলিস্কোপের অবদান অনেক বেশি। টেলিস্কোপের বহুবিধ ব্যবহার রয়েছে। মহাজাগতিক রহস্য উন্মোচনে বিজ্ঞানকে প্রয়োগ করতে হবে।”

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে