বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ উদ্যোগে ঢাকায় শুরু হলো দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার অনুশীলন

বুধবার, অক্টোবর ২৭, ২০২১,৩:৩৩ অপরাহ্ণ
0
3

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

শুরু হয়েছে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনী ও মার্কিন সেনাবাহিনীর যৌথ উদ্যোগে ভূমিকম্প পরবর্তী অনুসন্ধান ও উদ্ধার বিষয়ক তিন দিনব্যাপী অনুশীলন। গতকাল মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) এ অনুশীলন শুরু হয় ঢাকার আর্মি গল্ফ ক্লাবে।

আইএসপিআর জানায়, ‘ডিসাস্টার রেসপন্স এক্সারসাইজ অ্যান্ড একচেঞ্জ বাংলাদেশ-২০২১’ শীর্ষক এ অনুশীলনটি দুর্যোগ ব্যবস্থপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান প্রধান অতিথি হিসাবে উদ্বোধন করেন।

ভূমিকম্প তথা সকল দুর্যোগ ব্যবস্থপনায় আন্তর্জাতিক পদ্ধতির উপর সম্যক ধারনালাভ, দুর্যোগ মোকাবেলায় সমন্বিত প্রয়াস নিশ্চিত করতে জন্য সব অংশীজনের মধ্যে সমন্বয় বাড়ানো, ভূমিকম্প মোকাবেলায় অনুসন্ধান ও উদ্ধার, যোগাযোগ, মেডিক্যাল শেল্টার ও ত্রাণ কার্যক্রম ইত্যাদির আলোকে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার নীতিমালা চূড়ান্তকরা এ অনুশীলনের মূল উদ্দেশ্য।

সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লে. জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান, দুর্যোগ ব্যবস্থপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোহসীন, প্রশান্ত মহাসাগরীয় মার্কিন সেনাবাহিনীর মেজর জেনারেল রেজিনাল্ড জিএ নিল বক্তব্য রাখেন। অন্যান্যের মধ্যে সাময়িক ও অসামরিক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, অংশগ্রহণকারী দেশসমূহের সামরিক উপদেষ্টা ও কূটনীতিকগণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ভূমিকম্প দুর্যোগ ব্যবস্থপনা বিষয়ক এ অনুশীলন ২০১০ সাল থেকে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। দুর্যোগ ব্যবস্থপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ ও ইউএস আর্মি প্যাসিফিক এর যৌথ উদ্যোগে যথাযথ কোভিড-১৯ প্রটোকল অনুসরণপূর্বক অনুশীলনটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

অনুশীলনে ২৩টি দেশের ১৪৭টি সংস্থার ৩০০-এর বেশি প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করছেন। দেশগুলো হচ্ছে বাংলাদেশ, নেপাল, ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, জাপান, ভূটান, মালদ্বীপ, শ্রীলংকা, অস্ট্রেলিয়া, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন, তুরস্ক, ফিজি, মঙ্গোলিয়া, লাওস, কেনিয়া, জার্মানী, নিউজিল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, নাইজেরিয়া ও চীন।

অংশগ্রহণকারীগণ দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় জড়িত বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, সংস্থা ও এনজিওসমূহকে প্রতিনিধিত্ব করছেন। এছাড়া এ অনুশীলনে অংশ নিচ্ছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত বিষয়ে অধ্যয়নরত বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও স্বেচ্ছাসেবকরা। এই ধরনের অনুশীলন ভূমিকম্প পরবর্তী দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার আন্তর্জাতিক পর্যায়ে পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে। 

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে