বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ কল্যাণ ট্রাস্টের চট্টগ্রামস্থ সম্পত্তির ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত সভা অনুষ্ঠিত

রবিবার, অক্টোবর ৩১, ২০২১,১০:০৮ পূর্বাহ্ণ
0
8

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধ কল্যাণ ট্রাস্টের চট্টগ্রামস্থ সম্পত্তির ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত সভা ২৮ অক্টোবর ২০২১ তারিখ বৃহষ্পতিবার বিকাল ৩ঃ৩০ টায় চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজ সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক। এছাড়া মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি শাজাহান খান এমপি, ট্রাস্টের নির্বাহী কমিটির সদস্য মোঃ নাসির উদ্দিন এমপি, নাহিদ ইজাহার খান এমপি, ফরিদা খানম এমপি, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়েরর সচিব খাজা মিয়া, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, এস এম মাহবুবুর রহমান, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার, চট্টগ্রাম মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার, ট্রাস্টের পরিচালক (শিল্প ও বাণিজ্য)  ড. মোঃ জাহেদুল ইসলাম, পরিচালক (অর্থ) ড.মোঃ আমিনুল ইসলাম, ট্রাস্টের সচিব (উপসচিব) তরফদার মোঃ আক্তার জামীল, ট্রাস্টের ঢাকা ও চট্টগ্রাম কার্যালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ এবং ট্রাস্টের চট্টগ্রামস্থ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ভাড়াটিয়া ও ডেভেলপারদের প্রতিনিধিদল উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময় সভায় মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিশেষতঃ শহীদ, যুদ্ধাহত ও খেতাবপ্রাপ্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবারের কল্যাণের জন্য ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বিভিন্ন কলকারখানা রাষ্ট্রীয় সম্পত্তি হিসেবে গ্রহণ করেছিলেন। কিন্তু পরবর্তীতে মোস্তাক-জিয়াচক্র গৃহীত কলকারখানাসমূহ পানির দামে বিক্রি করে। তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের আওতায় চট্টগ্রামে অনেকগুলো স্থাপনা, প্রতিষ্ঠান ও সম্পত্তি রয়েছে। বেশ কিছু স্থাপনা তারা পরিদর্শন করেছেন। যেখানে যে সমস্যা রয়েছে সেগুলো চিহ্নিত করে তা দূরীকরণে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।  

উল্লেখ্য,চট্টগ্রামে মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার মধো রয়েছে জয় বাংলা বাণিজ্যিক ভবন (২টি বেইজমেন্টসহ ১৯ তলা, প্রস্তাবিত), টাওয়ার-৭১ (৪টি বেইজমেন্টসহ ২৯ তলা, প্রস্তাবিত), কালুরঘাট স্থাপনা কেন্দ্র, রাঙ্গুনিয়ার ইস্টার্ণ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ লিঃ এর স্থাপনা ও সম্পত্তি, রাঙ্গুনিয়ার ১৫ একর, পাহাড়ি জমি, চট্টেশ্বরি রোডের দেলোয়ার পিকচার্স এর ৬৫.৯ শতাংশ জমি, মোহরা শিল্প এলাকার মাল্টিপল জুস কনসেনট্রেট প্ল্যান্ট এর ৫.০৬ একর জমি, নাসিরাবাদ শিল্প এলাকার মেটাল প্যাকেজেস লিঃ ও বাক্সলি পেইন্টস এর জমি ও স্থাপনা প্রভৃতি।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে