বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের সদস্য পদে নিয়োগ পেলেন প্রকৌঃ নাসির আহ্‌মেদ

বুধবার, জুন ২৩, ২০২১,৩:৩৮ অপরাহ্ণ
0
18

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারিকৃত সরকারী আদেশের মাধ্যমে প্রকৌঃ নাসির আহ্‌মেদ ১৩ জুন’ ২০২১ খ্রি: তারিখে বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশনের সদস্য, প্রকৌশল (চলতি দায়িত্ব) পদে নিয়োগ পেয়েছেন।

এর পূর্বে ২০১৮ সালের এপ্রিল মাস থেকে তিনি প্রধান কার্যালয়ে প্রকৌশল বিভাগের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালনের সাথে কমিশনের প্রকৌশল সেবা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ের পরিকল্পনা, ব্যবস্থাপনা ও বাস্তবায়নের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি সাভারস্থ পশগপ্র এর অধীন ইনস্টিটিউট অব নিউক্লিয়ার সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজির অন্তর্ভুক্ত আইসোটোপ হাইড্রোলজি বিভাগে উর্দ্ধতন প্রকৌশলী এবং বিভাগীয় প্রধান হিসেবে কমিশনে তাঁর কর্মজীবন শুরু করেন। বাপশক-এর গবেষণা ও উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে তাঁর পুরো কর্মজীবনে রয়েছে গৌরবময় অবদান।

কর্মজীবনে তিনি কমিশনের সকল হাইড্রোলজি সংক্রান্ত গবেষণা এবং মাঠ পর্যায়ের অনুসন্ধান, ভূ-গর্ভস্থ পানিসম্পদ মূল্যায়ন এবং জলবায়ূ পরিবর্তনের সহিত সংশ্লিষ্ট Isotopes in Precipitation সংক্রান্ত গবেষণায় প্রযুক্তিগত সেবা প্রদান এবং মান নিয়ন্ত্রণের জন্য দায়িত্ব প্রাপ্ত ছিলেন। দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে এবং জাতীয় পর্যায়ের প্রান্তিক ব্যবহারকারী অধিদপ্তরসমূহে (DPHE, BWDB, DWASA, CWASA, IWM ইত্যাদি) পানিসম্পদ গবেষণায় Isotope Technique এর প্রয়োগকে জনপ্রিয় করার ক্ষেত্রে তিনি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। তিনি ২০০৫ সালে মুখ্য প্রকৌশলী এবং ২০১২ সালে প্রধান প্রকৌশলী হিসাবে পদোন্নতি লাভ করেন। 

প্রকৌঃ নাসির আহ্‌মেদ চট্টগ্রামের একটি সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি এক কন্যার পিতা। তিনি ১৯৮০ সালে আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজ থেকে এস. এস. সি. এবং ১৯৮২ সালে নটরডেম কলেজ থেকে এইচ. এস. সি. পাশ করেন। অতঃপর বুয়েট থেকে ১৯৮৮ সালে পুরপ্রকৌশল প্রকৌশলে স্নাতক ডিগ্রী এবং পানিসম্পদ প্রকৌশলে ১৯৯৬ সালে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী লাভ করেন।

প্রকৌঃ নাসির আহ্‌মেদ বাংলাদেশ সরকারের বার্ষিক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় “Isotope Hydrology for Ground water Resources Exploration” শীর্ষক প্রকল্পের একজন সফল প্রকল্প পরিচালক ছিলেন। প্রকল্পটি মূলত Isotope Technique প্রয়োগের মাধ্যমে ভূ-গর্ভস্থ পানিসম্পদের গুণগত মান এবং পরিমাণগত মূল্যায়ন এবং হাইড্রলজি সংক্রান্ত সমীক্ষার রূপকল্প নির্ধারণ এবং সমন্বয়ের জন্য কাজ করেছিল। IAEA এর Technical Cooperation Project এর Project Counterpart হিসেবে পানির আইসোটোপ বিশ্লেষণের ক্ষেত্রে জাতীয় সক্ষমতা বৃদ্ধিতে তিনি অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। এ ছাড়া তিনি IAEA –এর Regional Cooperation Agreement (RCA)-এর প্রকল্পের জাতীয় প্রকল্প সমন্বয়ক হিসেবে Isotope Technique ব্যবহার করে ভূ-গর্ভস্থ পানিসম্পদ অনুসন্ধান এবং মূল্যায়নে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেন। তিনি Global Network of Isotopes in Precipitation (GNIP), IAEA- এর আওতায় বাংলাদেশে Atmospheric Precipitation–এর ক্ষেত্রে গবেষণা কার্য সূচনা করেন।

দীর্ঘ কর্মজীবনে প্রকৌঃ নাসির আহমেদ দেশে বিদেশের বিভিন্ন বিখ্যাত প্রতিষ্ঠান থেকে পেশাগত প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত হয়েছেন। এগুলোর মধ্যে Office of Atomic Energy for Peace, Thailand; Joanneum Research, Institute of Hydrogeology & Geothermics, Austria; Bhabha Atomic Research Centre, India; CSIRO Land and Water, South Australia; MEXT Nuclear Researchers Exchange Programme 2011, Japan; Argonne National Laboratory, Ilinois, USA ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য। এছাড়াও তিনি অস্ট্রিয়া, ভারত, থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন, ভিয়েতনাম, দক্ষিণকোরিয়া, চীন, জাপানসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অসংখ্য সভা, কনফারেন্স, সিম্পোজিয়াম এবং কর্মশালায় অংশ গ্রহণ করেছেন।

স্বনামধন্য জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক জার্নাল/কনফারেন্সে তাঁর বেশকিছু Isotope Hydrology গবেষণা সংক্রান্ত বৈজ্ঞানিক প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। তিনি IEB (আজীবন ফেলো), NOAMI বাংলাদেশ (আজীবন সদস্য), এশিয়াটিক সোসাইটি বাংলাদেশ (আজীবন সদস্য), বাংলাদেশের ফিজিক্যাল সোসোইটি (আজীবন সদস্য) এবং বাংলাদেশ এসোসিয়েশন ফর দি এডভান্সমেন্ট অব সায়েন্স (আজীবন সদস্য) সহ বহু মর্যাদাপূর্ণ পেশাগত সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছেন। তিনি IEB- এর Certified Professional Engineer হিসেবে বিবেচিত হয়েছেন।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে