বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ময়মনসিংহ সাহিত্য সংসদের বিশেষ আসর

বুধবার, জানুয়ারি ১৩, ২০২১,১২:২০ পূর্বাহ্ণ
0
6

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

নিজস্ব সংবাদদাতা : বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ময়মনসিংহ সাহিত্য সংসদের নিয়মিত পাঠচক্র বীক্ষণ-এর গত ০৮ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হলো বিশেষ কবিতার আসর” বঙ্গবন্ধুর ফিরে আসা:১০ জানুয়ারি’৭২,”বিজয়ের বেশে,বিজিত স্বদেশে। ” 
প্রথম পর্বের আলোচনা সভায় আলোচক ছিলেন গোলাম ফেরদৌস জিলু, জাতীয় পরিষদ সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও সহ-সভাপতি, মহানগর আওয়ামী লীগ,ময়মনসিংহ সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের উপাধ্যক্ষ মোঃ মুঈন উদ্দিন, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় এর থিয়েটার অ্যান্ড পারফরম্যান্স স্টাডিজ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মোঃ কামাল উদ্দীন। 
আলোচনার শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন ময়মনসিংহ সাহিত্য সংসদের সাধারণ সম্পাদক স্বাধীন চৌধুরী। আলোচকবৃন্দ ১০ জানুয়ারি ১৯৭২ তারিখে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনপূর্ব ও প্রত্যাবর্তন পরবর্তী বিভিন্ন উল্লেখযোগ্য ঘটনা নিয়ে আলোচনা করেন। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা কবি বিমল পাল। 
২য় পর্বে শুরু হয় যথারীতি স্বরচিত কবিতা ও অন্য কবিতা আবৃত্তির অনুষ্ঠান। এই পর্বে স্বরচিত কবিতা আবৃত্তি করেন কবি আলম মাহবুব, আশিক সারওয়ার, গণেশ চন্দ্র সাহা, রহমান হাবিব, কৃষিবিদ কবি ও প্রাবন্ধিক শেখ মোঃ মুজাহিদ নোমানী এবং কবি কাশেম। কৃষিবিদ কবি মুজাহিদ নোমানী “বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস” উপলক্ষে রচিত “বঙ্গবন্ধুর প্রত্যাবর্তন ও দূরদর্শিতা ” শীর্ষক স্বরচিত কবিতাটি আবৃত্তি করেন যা উপস্থিত সুধী ও অতিথিবৃন্দের প্রশংসা অর্জন করে। 

বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদকপ্রাপ্ত সাংবাদিক ও প্রাবন্ধিক কৃষিবিদ শেখ মোঃ মুজাহিদ নোমানী প্রকাশিত প্রতিবেদনসমুহের মূলকপি ও ফটোকপি যথারীতি ময়মনসিংহ সাহিত্য সংসদের সাধারণ সম্পাদক স্বাধীন চৌধুরী এবং বীক্ষণ এর আহ্বায়ক আমজাদ শ্রাবণ এর নিকট হস্তান্তর করেন। 

পুরো অনুষ্ঠানটি কখনো সুমধুর কন্ঠে সেই সময়ের জনপ্রিয় দেশাত্মবোধক গানের মুর্ছনায়, কখনও আবার ভরাট সুললিত গলায় কবিতার ছন্দে ও কথায় চমৎকার উপস্থাপনায় পুরো অনুষ্ঠানটিকে আকর্ষণীয় ও উপভোগ্য করে তোলেন বর্তমান প্রজন্মের একজন বিশিষ্ট আবৃত্তিকার, কন্ঠশিল্পী ও চৌকস সঞ্চালক বীক্ষণ এর বর্তমান আহ্বায়ক আমজাদ শ্রাবণ। সবশেষে ব্রম্মপুত্র নদের তীরে স্থানীয় চা দোকানের তৈরী লেবু, আদা আর জিরাভাজা দিয়ে তৈরী সেই “বিশেষ চা” দিয়ে আপ্যায়ন শেষে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি টানা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা কবি বিমল পাল।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে