প্রত্যেক ধর্মের মর্মবাণী হচ্ছে মানবকল্যাণ করা

মঙ্গলবার, অক্টোবর ১৩, ২০২০,১২:১৮ অপরাহ্ণ
0
22

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনে প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন বলেছেন, প্রত্যেক ধর্মের মর্মবাণী হচ্ছে মানবকল্যাণ করা। পৃথিবীতে যত ধরণের ভাল কাজ আছে তার মধ্যে সর্বোত্তম হল অনাহারীকে অন্ন দেওয়া ও রোগীর সেবা করা।

গতকাল সকালে টায়গারপাসস্থ চসিক সম্মেলন কক্ষে গোলপাহাড় মহাশশ্মান নবনির্বাচিত পরিচালনা পরিষদের নেতৃবৃন্দের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে প্রশাসক এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, প্রত্যেক ধর্মের অনুসারীরা যদি তাদের স্ব-স্ব ধর্ম ভাবগাম্ভীর্যের সাথে পালন করে তাহলে দেশের মধ্যে কোন সাম্প্রদায়িকতা, অরাজকতা ও হানাহানি থাকবে না। সবধর্মের মানুষের মৃত্যু অবধারিত। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শেষ যাত্রা স্থল হল শশ্মান। মন্দির এবং শশ্মান একটি পবিত্র স্থান। তাই এ শশ্মান ও মন্দির সবসময় পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখা এবং তা পরিচর্যা করার জন্য পরিষদের নেতৃবৃন্দকে পরামর্শ দেন প্রশাসক।

তিনি নব নির্বাচিত পরিষদের উদ্দেশ্যে বলেন, এই মন্দিরে অতীতে যে সুনামের সাথে বিভিন্ন সামাজিক ও সেবামূলক কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে তার ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হবে। তিনি বলেন, এটি একটি ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন মন্দির। এর রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব আপনাদের। মহাশশ্মান উন্নয়নে সিটি কর্পোরেশন কিছু প্রণোদনা দিচ্ছে তবে এটা যথেষ্ট নয়- তারপরও এগিয়ে এসেছেন সনাতন ধর্মাবলম্বীদের কিছু সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠান। তাদের সহযোগে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শেষ যাত্রার স্থানটিকে সিটি কর্পোরেশনের সামর্থ অনুযায়ী সর্বাত্মক সহযোগিতা করা হবে।

এ সময় প্রশাসকের একান্ত সচিব মোহাম্মদ আবুল হাশেম, গোলপাহাড় মহশশ্মান নবনির্বাচিত পরিচালনা পরিষদে সভাপতি মাইকেল দে, সাধারণ সম্পাদক কাজল কান্তি দেব, যুগ্ম সম্পাদক সঞ্জয় ভৌমিক কাঞ্চন, মুনমুন দত্ত মুন্না, মহিলা সম্পাদক সুচিত্রা গুহ টুম্পা, রাজিন চৌধুরী রাজু, নারায়ন দাশ, প্রদীপ দাশ, অমিত চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে