প্রজেক্ট সাহসের উদ্যোগে খুলনাতে আত্মরক্ষার কৌশল শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

বৃহস্পতিবার, মার্চ ৩১, ২০২২,১২:১০ অপরাহ্ণ
0
62

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

প্রজেক্ট সাহস (আমরা নতুন নেটওয়ার্ক ইনিশিয়েটিভ) কাজ করছে সচেতনতা সৃষ্টি এবং আত্মরক্ষার কৌশল নিয়ে। বর্তমানে আমাদের সমাজে বিশেষ করে মেয়েরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ভাবে হ্যারাসমেন্টের শিকার হচ্ছে। এমতাবস্থায় এই সকল সামাজিক সমস্যার বিরুদ্ধে আমাদের সোচ্চার হওয়া প্রয়োজন। কিন্তু আওয়াজ তোলার জন্য সবচেয়ে জরুরী বিষয় হলো দৃঢ় মনোবল এবং শক্তি। ঠিক আমরা এখানে কাজ করছি। কিভাবে ছেলে মেয়েরা নিজেদেরকে রক্ষা করা এবং প্রতিকূল পরিবেশে নিজেদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারে। আমাদের প্রজেক্টের প্রধান উদ্দেশ্য প্রত্যেক ঘরে ঘরে একজন প্রশিক্ষক তৈরি করা যারা পরবর্তীতে অপরকে শেখাবে আত্মরক্ষা বিষয়টা কেন সবার জন্য জরুরী। 

এরই ধারাবাহিকতায় প্রজেক্ট সাহস গত ২৯ মার্চ “খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় স্কুলে” আত্মরক্ষা বিষয়ক কর্মশালার আয়োজন করে। উক্ত কর্মশালার উদ্বোধন করেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় স্কুলের প্রধান শিক্ষক স্বর্ণকমল রায়। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন প্রজেক্ট সাহসের তিনজন কো-ফাউন্ডার জান্নাতুল ফেরদৌস পুস্প, তানভীর হোসেন অপু এবং আশরাফুল হামজা আকাশ। যাতে অংশগ্রহণ করে অষ্টম নবম ও দশম শ্রেণীর ৫০ জন ছাত্র-ছাত্রী। কর্মশালায় তাদেরকে ব্যক্তিগত সুরক্ষা বিষয়ক প্রশিক্ষণ দেয়া হয় এবং বিভিন্ন কৌশল সম্পর্কে বিস্তারিত অবহিত করা হয়। শিক্ষার্থীরাও আত্মরক্ষা নিয়ে তাদের ধারণার কথা তুলে ধরেন। কর্মশালায় আত্মরক্ষা সম্পর্কে বক্তাদের বক্তব্যের কিছু অংশ নিম্নরূপঃ
বিভিন্ন কারণে আমরা প্রতিদিন নিত্য নতুন সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছি। তার মধ্যে নিজেদের রক্ষা করার মত সমস্যা মোকাবেলার জন্য আমাদের আত্মরক্ষার কৌশল জানা প্রয়োজন। আত্মরক্ষার প্রচলন বিশ্বে অনেক অনেক আগ থেকেই। বিভিন্ন দেশের নিজ নিজ আত্মরক্ষার কৌশলও আছে। এখন যে সময় আমরা পার করছি সামাজিক, প্রযুক্তিগত ও শিক্ষাগত সবকিছু বিবেচনা করলে সহজেই বোঝা যায় কেন আত্মরক্ষা শেখা দরকার।
আত্মরক্ষা শুধু যে নিজেকে রক্ষা করার আর্ট তা নয়, আত্মরক্ষার কৌশল জানা আপনাকে এমন কিছুতে সাহায্য করবে যা আপনি ভাবতে পারবেন না। নিন্মে কয়েকটি আত্মরক্ষার কৌশল উপকারিতা তুলে ধরা হলোঃ  

★আত্মবিশ্বাস তৈরি-
আত্মরক্ষা শেখা শুরু করার পর থেকেই আপনার মধ্যে একটা পরিবর্তন আসবে। নিজের যোগ্যতা বা দক্ষতা নিয়ে আমরা অনেকেই সন্দিহান থাকি। সেল্ফ ডিফেন্স বা আত্মরক্ষা শেখা আপনার মধ্যে আত্মবিশ্বাস এনে দিবে। আপনাকে কেউ যদি বুলি করে বা টিটকারি দিয়ে কথা বলে তাহলে আপনারও যে এখানে কিছু একটা কনফিডেন্টলি বলার আছে, তাই আত্মরক্ষা শেখানো হয়। সেল্ফ ডিফেন্স দিয়ে একজন মানুষকে যে শুধু আত্মবিশ্বাসী করা যায় তা না, সর্বোপরি তাকে মানসিক ও শারীরিকভাবে শক্ত মানুষে পরিণত করাও এর উদ্দেশ্য।

★ব্যালেন্স বা সঠিক ভারসাম্য-
আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা দুটি কাজ একসাথে করতে পারেন না। যেমন হাঁটতে হাঁটতে চুইংগাম খাওয়া। শারীরিক ভারসাম্যে উন্নতি ঘটানোর সাথে সাথে আপনি যেন একাধিক কাজ একই সময়ে ঠিকঠাক ভাবে করতে পারেন তার প্রশিক্ষল ব্যক্তিগত সুরক্ষায় নিশ্চিত করা হয়। ভারসাম্যের উন্নতি বলতে আসলে ফোকাস ঠিক করাকে বোঝায়। যেমন কারাতে ক্লাসেই শেখানো হয় কীভাবে শারীরিক ভারসাম্য ধরে রেখে আপনার লক্ষ্যে ফোকাস করতে পারবেন। ব্যালেন্স না রেখে ফাইট করা প্রায় অসম্ভব। আত্মরক্ষার জন্য ব্যালেন্স রাখাটা জরুরি।

★জীবনে ডিসিপ্লিন মানা-
সেল্ফ ডিসিপ্লিনই শেষ পর্যন্ত টিকে থাকে। আত্মরক্ষার কৌশল রপ্ত করতে হলে নিয়ম মেনে চলতে হবে। নিয়মিত প্র্যাকটিস করার মানসিকতা থাকতে হবে এবং প্রতিদিন প্র্যাকটিস চালিয়ে যেতে হবে। প্রতিদিন চর্চা করার মাধ্যমেই তৈরি হবে ডিসিপ্লিন। প্রতিকূল পরিবেশে কীভাবে নিজেকে সুরক্ষিত রাখা যায় এবং কীভাবে ফোকাসড থাকতে হয় তা শিখতে পারবেন আত্মরক্ষা শিখলে।

★ শারীরিক উন্নতিতে সহায়তা করে-
আপনার ক্ষতি হতে পারে এমন পরিস্থিতিতে যেন নিজেকে নিরাপদে রাখতে পারেন তারই প্রশিক্ষণ দেয়া হয় ব্যক্তিগত সুরক্ষা। আত্মরক্ষার ব্যাপারে শারীরিক অবস্থা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। হুট করে এমন পরিস্থিতি যদি সামনে আসে যখন আপনাকে হয়ত নিজেকে বাঁচানোর জন্য লড়তে হতে পারে, সেই মুহূর্তে অ্যাড্রেনালিন ডাম্প হয়ে যেন দিশেহারা হয়ে না যান তার জন্য ট্রেনিং এবং প্রস্তুতির প্রয়োজন। যেটা আপনি আত্মরক্ষা শিখলে পেতে পারেন। 
আপনাকে যদি কেউ ধাওয়া করে তখন অ্যাড্রেনালিন হরমোনের কারণে আপনার মধ্যে অস্থিরতা তৈরি হবে, তা থেকে শরীর নিজেই নিজেকে রক্ষা করার জন্য প্রস্তুতি নেয়। এরকম অবস্থা মাত্র কয়েক সেকেন্ড স্থায়ী হয়। যার কারণে ওই সময়টাকে সামলে বিপদ মোকাবিলার জন্য শারীরিকভাবে আপনাকে প্রস্তুত থাকতে হবে। শরীরচর্চা আপনার রিফ্লেক্স ঠিক রাখে এবং কখন প্রতি আক্রমণ করতে হবে তার একটা ধারণা তৈরি করতে সাহায্য করে। যদি আপনার ভালো প্রস্তুতি থাকে অ্যাড্রেনালিন ডাম্প হলেও ওই মুহূর্তে আপনি অ্যানার্জি হারাবেন না, বরং সফল ভাবে আত্মরক্ষা করতে পারবেন। 

★ রাস্তাঘাটে চলার সময় সতর্ক থাকতে পারবেন-
আত্মরক্ষা ক্লাস আপনার চারপাশের অবস্থা নিয়ে আপনাকে সচেতন হওয়া শেখাবে। আপনাকে কেউ আক্রমণ করতে পারে এমনটা হয়তো সবসময় আপনার পরিকল্পনায় থাকে না, কিন্তু যে আপনাকে আক্রমণ করার জন্য টার্গেট করেছে আপনি তার পরিকল্পনায় আছেন। এরকম অবাঞ্ছিত পরিস্থিতির সম্মুখীন হওয়ার আগেই আপনি যেন সচেতন থাকতে পারেন এবং সেটা মোকাবিলার জন্য আপনি যেন সদা প্রস্তুত  থাকেন আত্মরক্ষা ক্লাসে আপনাকে সে ট্রেনিং দেওয়া হয়। তাছাড়া আক্রমণকারী কোথায় বা কীভাবে আ্যটাক করতে পারে আর কোথায় লুকিয়ে থাকতে পারে তারও ধারণা পাবেন।  

★ নিজের প্রতি সম্মান-
কারাতে প্র্যাকটিস সহ অন্যান্য ব্যক্তিগত সুরক্ষা ক্লাস মূলত বিশ্বাস এবং সম্মান রক্ষাকে কেন্দ্র করে পরিচালিত হয়। এখানে একে অপরকে সম্মান করা এবং তার সাথে নিজেকে সম্মান করাও শেখানো হয় যা জানা জীবনের জন্য অত্যাবশ্যক। যদি নিজেকে সম্মান করতে না জানেন তাহলে আপনি কী করে অন্য কাউকে সম্মান করবেন। 


★লক্ষ্য ঠিক করতে সাহায্য করবে-  

আত্মরক্ষা ক্লাস লক্ষ্যে অটুট থাকতে শেখায়। আপনি হয়ত নির্দিষ্ট কোনো পদক্ষেপ নিতে চান  বা নিজেকে রক্ষার কৌশলগুলি আয়ত্ত করার জন্য পরিশ্রম করত চান, এসবই কিন্তু আপনার নির্ধারণ করা গোল বা লক্ষ্য। এজন্য যেই ধৈর্য্যটা দরকার তা আপনাকে শেখাবে ব্যক্তিগত সুরক্ষা৷ আগে আপনি যা কখনোই করেননি তেমন একটা অভিজ্ঞতাও হয়ত অর্জিত হতে পারে।

★ আপনার জীবনে পজিটিভ প্রভাব লক্ষ্য করতে পারবেন-
অন্যান্য অনেক জিনিসের মতই আত্মরক্ষাও আপনার জীবনে একটা পজিটিভ পরিবর্তন এনে দিবে। আত্মরক্ষা ক্লাস করার মাধ্যমে আপনি হয়ে উঠবেন আরো আত্মবিশ্বাসী এবং কনফিডেন্ট।
এমন কিছু গুরুত্বপূর্ণ কাজ আছে যা অবশ্যই করা উচিত জীবনে, আত্মরক্ষা শেখা অবশ্যই তার মধ্যে একটি।আত্মরক্ষা প্রশিক্ষণের  মাধ্যমে আমরা আমাদের দৈনন্দিন জীবনে অনেক সুফল পাবো যা আমাদের বড় ধরনের ক্ষতি থেকে রক্ষা করবে।

সর্বোপরি, শিক্ষক- শিক্ষয়িত্রী এবং ছাত্র-ছাত্রীদের আন্তরিকতায় চমৎকার একটা কর্মশালা সম্পন্ন হয়।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে