পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে ভর্তির বয়সসীমা তুলে দেওয়ায় কঠোর আন্দোলনে যাচ্ছে আইডিইবি

শুক্রবার, আগস্ট ১৪, ২০২০,৪:৪৭ অপরাহ্ণ
0
3

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি) পলিটেকনিক ইন্সটিটিউটে ভর্তির বয়সসীমা তুলে দেওয়ায় কঠোর আন্দোলনে যাচ্ছে। ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের জারিকৃত ভর্তি নীতিমালা বাতিল বা সংশোধন না করলে আগামী সেপ্টেম্বর থেকে দেশব্যাপী আন্দোলনে নামার ঘোষণা দেন তারা।

আজ শুক্রবার (১৪ আগস্ট) আইইডিবির মহাসচিব ইঞ্জিনিয়ার মো. শামসুর রহমান আইডিইবি’র উদ্যোগে সাংবাদিকদের সঙ্গে ‘সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে কারিগরি শিক্ষার গুরুত্ব ও বর্তমান সংকট’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় এই ঘোষণা দেন।

শামসুর রহমান বলেন, পলিটেকনিকসমূহে যেকোনো বয়সের শিক্ষার্থীদের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির সিদ্ধান্ত দেওয়ায় শান্ত প্রকৌশল ও পলিটেকনিক শিক্ষা পরিবেশকে উত্তপ্ত করে তুলছে। আমাদের দাবি, ২০১৯ সালের নীতিমালা অনুসারে শিক্ষার্থী ভর্তি করতে হবে। তা না হলে আগামী ৫ সেপ্টেম্বর সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে কঠোর আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবেন ছাত্র-শিক্ষকরা।

মহাসচিব আরো বলেন, পিতৃতুল্য কিংবা বড় ভাইয়ের বয়সী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ব্যাপক ফারাকের কারণে শ্রেণিকক্ষের ভারসাম্য নষ্ট হবে, সামাজিক ও প্রশাসনিক সমস্যার সৃষ্টি হবে। শিক্ষকদের পক্ষে শ্রেণিকক্ষের পরিবেশ রক্ষা সম্ভব হবে না। ফলে নিয়মিত শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা এ শিক্ষার প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। শিক্ষার্থী বৃদ্ধির পরিবর্তে হ্রাস পাবে। সমাজে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষা সম্পর্কে বিরূপ ধারণার সৃষ্টি হবে।

আইডিইবির সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার এ কে এম এ হামিদ বলেন, বিদেশফেরত বা সার্টিফিকেটবিহীন দক্ষ ব্যক্তিদের এনএসডিএ, এনটিভিকিউএফ- এর আওতায় লেভেল ১ থেকে ৬ পর্যন্ত দক্ষতা অর্জনের মাধ্যমে ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের সমতুল্য হওয়ার সুযোগ রয়েছে। যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, বিএমইটিসহ ২৩টি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে দক্ষতা অর্জনের ব্যবস্থা আছে। যাদের সনদায়ন করে থাকে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড। যদি তারপরও বয়স্কদের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং পড়াতে হয়, তাহলে সান্ধ্যকালীন কোর্সের মাধ্যমে তাদেরকে ভর্তি করে ক্লাস চালানো যেতে পারে।

এই সভাপতি আরো বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয় ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের সঙ্গে ৪ বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের মতো ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স পরিচালনাকারী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটকে এক করে ফেলেছে, যা খুবই হতাশাজনক। ১৫-২০ বছর আগে মাধ্যমিক উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের পক্ষে আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং কারিকুলামের সিলেবাসভুক্ত বিষয়গুলো অনুধাবন করা কোনোভাবেই সম্ভব হবে না।

মতবিনিময় সভায় কারিগরি শিক্ষার সমস্যা ও সম্ভাবনা বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন এডুকেশন রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন, বাংলাদেশ (ইরাব) সভাপতি মুসতাক আহমদ, সাধারণ সম্পাদক নিজামুল হক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাব্বির নেওয়াজসহ সিনিয়র সদস্যবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন জণকণ্ঠের নগর সম্পাদক কাউসার রহমান, ইন্ডিপেনডেন্ট টিভির চিফ নিউজ এডিটর আশীষ সৈকত, জিটিভির চিফ রিপোর্টার রাজু আহমেদ, সিনিয়র সাংবাদিক ফয়সাল আল মাহমুদ, জাগো নিউজের চিফ রিপোর্টার মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল প্রমুখ। 

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে