দোহারে বিয়ের প্রলোভনে নারীকে ধর্ষণ ও সালিশ করে টাকা জরিমানা করায় মহিলা পরিষদের ক্ষোভ

বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১৩, ২০২০,৩:১৬ অপরাহ্ণ
0
61

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ এক বিবৃতিতে ঢাকা মহানগরের দোহারে বিয়ের প্রলোভনে নারীকে ধর্ষণ ও প্রভাবশালীরা সালিশ করে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা ধার্য করার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে ।

বিবৃতিতে তারা বলেন, অদ্য ১৩ আগস্ট ২০২০ ইং তারিখ বিভিন্ন দৈনিক সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে জানা যায় যে- ঢাকা মহানগরের দোহারে বিয়ের প্রলোভনে নারীকে ধর্ষণ ও প্রভাবশালীরা সালিশ করে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা ধার্য করার ঘটনা ঘটেছে। জানা যায়, দোহার উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়নের শ্রীকৃষ্ণপুর গ্রামের নারীকে বিয়ের প্রলোভনে একই গ্রামের শহীদ মাঝি দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ করে আসছিল। এতে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে তার গর্ভপাত ঘটানো হয়। গত ১০.০৮.২০২০ তারিখ সোমবার পুলিশের সাবেক কর্মকর্তা মজিবুর রহমানের বাড়িতে ধর্ষণের ঘটনার মীমাংসা করতে সালিশ ডাকা হয়। সালিশে ধর্ষকের পক্ষ নিয়ে প্রভাবশালী মজিবুর দেওয়ান, ইয়ানুস, আওয়ামী লীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা আইয়ুব আলী মণ্ডল, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি বাসার চোকদার, বিলাশপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হুকুম আলী চোকদার, সাবেক ছাত্রনেতা সাজ্জাদ হোসেন সুরুজ, সাখাওয়াত হোসেন সেন্টু, শওকত হোসেন খান, জহির বেপারির উপস্থিতে ধর্ষককে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। কিন্তু ওই নারী টাকা না নিয়ে বিয়ের মাধ্যমে স্ত্রীর স্বীকৃতি চান। এ বিষয়ে পুলিশের সাবেক কর্মকর্তা মুজিবর রহমানের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি।

বিবৃতিতে তারা আরো বলেন, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ ঘটনার শিকার নারীকে বেআইনী সালিশের মাধ্যমে অপবাদ দিয়ে নানাভাবে হয়রানি ও নারীর মর্যদাহানী এবং জরিমানার ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করছে।যারা এই ধর্ষণের ঘটনার বেআইনী সালিশের সাথে জড়িত তাদেরকেও বিচারের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছে। উক্ত ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত সাপেক্ষে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানাচ্ছে। ঘটনার শিকার নারীর সুচিকিৎসাসহ তার ও তার পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের অনুরোধ জানাচ্ছে। একইসাথে বেআইনী সালিশ বন্ধে মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগের রায় বাস্তবায়ন বিষয়ে এ ধরণের ঘটনা প্রতিরোধে সরকার, প্রশাসনের বিশেষ দৃষ্টি আকর্ষণ করছে। সেইসাথে ধর্ষণ, গণধর্ষণ, যৌন নিপীড়ন, পারিবারিক সহিংসতা এবং নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা প্রতিরোধে সকল সামাজিক শক্তিকে এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানাচ্ছে।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে