দেশে পর্যাপ্ত লবণ মজুদ রয়েছে : বিসিক

সোমবার, জুন ১৫, ২০২০,১০:৪২ পূর্বাহ্ণ
0
6

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

বর্তমানে দেশে পর্যাপ্ত লবণ মজুদ রয়েছে বলে জানিয়েছে শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কর্পোরেশন (বিসিক)।সংস্থাটি জানিয়েছে, সদ্য সমাপ্ত লবণ মৌসুমে উৎপাদিত নতুন লবণ এবং গত মৌসুম শেষে উদ্বৃত্তলবণ মিলিয়ে দেশে বর্তমানে লবণের মজুদ  ২০ লাখ ৩ হাজার মেট্রিক টন ।

          বিসিকের শিল্প উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ বিভাগ এবং কক্সবাজারে অবস্থিত বিসিক লবণ শিল্প উন্নয়ন কার্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে দেশে ভোজ্য ও শিল্প লবণের মোট চাহিদা নির্ধারণ করা হয়েছিল ১৮ লাখ ৪৯ হাজার মেট্রিক টন। এর মধ্যে সদ্য সমাপ্ত মৌসুমে মোট ১৫ লাখ ৭০ হাজার মেট্রিক টন ক্রুড লবণ উৎপাদিত হয়েছে। এছাড়া বিগত মৌসুমে উদ্বৃত্ত লবণ ছিল ৪ লাখ ৩৩ হাজার মে. টন । সব মিলিয়ে মোট জাতীয় চাহিদার বিপরীতে দেশে লবণের মোট মজুদ ২০ লাখ ৩ হাজার মেট্রিক টন। যাদেশেরমোটচাহিদারচেয়েপ্রায়১ দশমিক ৫০লাখমে.টনবেশি।

          এর মধ্যে চলতি অর্থ বছরের মে মাস পর্যন্ত চাহিদা মিটিয়েলবণ মাঠ ও মিল পর্যায়ে লবণের মোট মজুদের পরিমাণ ১৩ লাখ ৬৮ হাজার মে. টন। এছাড়া দেশের সকল জেলার ডিলার, পাইকারী ও খুরচা বিক্রেতা পর্যায়ে আয়োডিনযুক্ত ভোজ্য লবণ মজুদ রয়েছে।

          করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে শিল্প উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় দেশে বর্তমানে শিল্প লবণের চাহিদা তুলনামূলক কম পরিলক্ষিত হচ্ছে। ফলে বর্তমান মজুদকৃত লবণ দিয়েই আসন্ন ঈদুল আজহায় কোরবানির পশুর চামড়া প্রক্রিয়াজাতকরণ-সহ আগামী ১০ মাসের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব হবে। অন্যদিকে আগামী নভেম্বর মাসে লবণ উৎপাদনের মৌসুম শুরু হলে আবারও বাজারে নতুন লবণ আসতে শুরু করবে।ফলে এ বছর লবণ আমদানির কোনো প্রয়োজন হবে না বলে বিসিক সূত্রে জানা গেছে।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে