দেবিদ্বারে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর প্রচারণায় হামলা, আহত ৫; ভোট সুষ্ঠু নিয়ে শঙ্কা

বুধবার, জুলাই ১২, ২০২৩,১১:০৭ অপরাহ্ণ
0
9

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

দেবিদ্বার (কুমিল্লা) প্রতিনিধি : কুমিল্লার দেবিদ্বার পৌরসভা নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী এমএ কাইয়ুম ভূঁঞার কর্মীদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছেন অন্তত পাঁচজন। বুধবার বিকালে বারেরা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহত ব্যক্তিরা হলেন জয়নাল আবেদীন, আবুল বাসার ও সুমন ভূঞা। তাঁরা সবাই স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী এমএ কাইয়ুম ভূঁঞার কর্মী-সমর্থক। আহতের উদ্ধার করে দেবিদ্বার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এ ঘটনায় দেবিদ্বার থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন এমএ কাইয়ুম ভূঁঞা।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার বিকালে বারেরায় এলাকায় স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী এমএ কাইয়ুম ভূঁঞা তাঁর কর্মী-সমর্থক নিয়ে জনসংযোগ শুরু করেন। তিনি বারেরা এলাকার বিভিন্ন স্থানে ঘুরে বাস স্টেশনের পাশে একটি বাড়ির পাশে গেলে নৌকা সমর্থিত কর্মীরা এমএ কাইয়ুম ভূঁঞা ও তাঁর কর্মীদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় তাঁর ভাতিজা সুমনসহ তিন কর্মী গুরুতর আহত হয়।
স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী এমএ কাইয়ুম ভূঁঞা বলেন, বারেরা এলাকায় নির্বাচনী গণসংযোগ করতে গেলে নৌকার প্রার্থীর বহিরাগত কর্মী-সমর্থকরা আমাদের ওপর হামলা চালায়। ওই গণসংযোগে আমিও ছিলাম। আমাকে আমার কর্মীরা নিরাপদে সরিয়ে নেয়। পুলিশ অনেকবার কল করার পর ঘটনাস্থলে ২ ঘন্টা পরে গেলেও তারা হামলাকারী কাউকে আটক করেনি। উল্টো হামলাকারীদের পক্ষ নিয়ে আমাদেরকে ঘটনা স্থল ত্যাগ করার জন্য চাপ দেয়। এর আগে গত মঙ্গলবার রাতেও আমার দুই কর্মীকে মারধোর করেছে নৌকার বহিরাগত সন্ত্রাসীরা। প্রতিদিনই আমাদের নির্বাচনী প্রচারে বাধা দেওয়া হচ্ছে। আমি নির্বাচন কর্মকর্তার বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

এর আগে বুধবার সকালে ভিংলাবাড়ি তাঁর নির্বাচনী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করে বলেন, অবাধ ও সুষ্ঠু ভোট হবে কিনা আমি আশঙ্কায় আছি। নৌকার কর্মী-সমর্থকরা আমার প্রচার-প্রচারণায় পদে পদে বাধা দিচ্ছে, ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। আমার দুই কর্মী পোস্টার লাগাতে গেলে তাদের মারধোর করা হয়। আমাকে বিভিন্ন মহল থেকে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে। নির্বাচনে সুষ্ঠু ভোট হবে কিনা আমি শঙ্কা প্রকাশ করছি।

হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে নৌকার প্রার্থী সাইফুল ইসলাম শামীম বলেন, আমি উঠান বৈঠকে ছিলাম, কারা কখন হামলা করেছে আমার জানা নেই। আমার কোন কর্মী সমর্থক হামলার সাথে জড়িত নয়।
দেবিদ্বার থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) খাদেমুল বাহার বিন আবেদ বলেন, নির্বাচনী প্রচারে বাধা বা হামলা সংক্রান্ত লিখিত অভিযোগ থানায় দিয়েছে। আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে