দেবিদ্বারে সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে কাফনের কাপড় পরে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সংবাদ সম্মেলন

শনিবার, জুলাই ১৫, ২০২৩,৯:০৯ অপরাহ্ণ
0
9

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

ওসি ও এমপির বিরুদ্ধে অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার, কুমিল্লা:
কুমিল্লার দেবিদ্বার পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র প্রার্থি মো. আবুল কাশেম কাফনের কাপড় পরে অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও হয়রানীমুক্ত নির্বাচনের দাবি জানিয়েছেন। নির্বাচনসংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা নির্বাচনী পরিবেশ সুষ্ঠু না করলে এবং নিরপেক্ষ দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে ভোটারদের নির্বিঘ্নভাবে ভোটদানের সুযোগ সৃষ্টি না করলে তিনি আত্মহত্যা করবেন। এমন পরিস্থিতির জন্য স্থানীয় এমপি, প্রশাসন ও থানার ওসিকে দায় নিতে হবে। এসময় তিনি থানার ওসির প্রত্যাহারের দাবি জানান। শনিবার বিকালে দেবিদ্বার পৌর এলাকায় সাংবাদিক সম্মেলন করে এমন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন নারিকেল গাছ প্রতীকের এই মেয়র প্রার্থী। তিনি দেবিদ্বার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থি হওয়ায় দল থেকে তাকে বহিস্কার করা হয়। অপরদিকে সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে মেয়র পদে ক্যারামবোর্ড প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থি এমএ কাইয়ুম ভূঁঞা শঙ্কা প্রকাশ করেছেন। তিনিও দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে প্রার্থি হওয়ায় দল থেকে বহিস্কার হয়েছেন। তিনি পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। প্রতিষ্ঠার ২২ বছর পর প্রথমবারের মতো সোমবার (১৭ জুলাই) এ পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করে স্বতন্ত্র প্রার্থি মো. আবুল কাশেম আরো বলেন, তার জনপ্রিয়তা দেখে নৌকার প্রার্থী ও দলের কিছু নেতা বেপরোয়া হয়ে ওঠেছে। ভোট কিনতে টাকার ছড়াছড়ির অভিযোগও করেন তিনি। এছাড়া তার কর্মী-সমর্থকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি-ধমকিসহ পুলিশের মাধ্যমে নানাভাবে হয়রানী করা হচ্ছে। স্থানীয় এমপি নির্বাচনী এলাকায় অবস্থান করে আওয়ামী লীগের প্রার্থির পক্ষে প্রভাব খাটাচ্ছেন এবং নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট করছেন বলেও তিনি অভিযোগ করেন। তিনি আরো বলেন, এর আগে সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে দেবিদ্বার থানার ওসিকে প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করা হলেও কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এ অবস্থায় সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন প্রভাবশালী এই প্রার্থী।
অপরদিকে মেয়র পদে একই দলের আরেক বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) প্রার্থি ক্যারামবোর্ড প্রতীকের এম এ কাইয়ুম ভূঁঞা পৃথক সাংবাদিক সম্মেলন করে সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, নৌকার প্রার্থির পক্ষে স্থানীয় এমপি, প্রশাসন, পুলিশ ও নির্বাচনসংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা একাট্টা হয়ে কাজ করছেন। তার কর্মী-সমর্থকদের নানাভাবে হুমকি দেয়া হচ্ছে। প্রচার-প্রচারণায় বাধা দেয়া হচ্ছে। সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের জন্য তিনি নির্বাচন কমিশনের হস্তক্ষেপের দাবি জানান।
উভয় স্বতন্ত্র প্রার্থির অভিযোগ অস্বীকার করে দেবিদ্বার থানার ওসি কমল কৃষ্ণ ধর বলেন, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ বজায় রাখতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। পুলিশের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ সঠিক নয়।
স্থানীয় এমপি রাজি মোহাম্মদ ফখরুলের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও রিসিভ না করায় বক্তব্য জানা যায় নাই।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে