‘ডিএনএ ল্যাবরেটরী ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর’ স্থাপনের প্রজ্ঞাপন জারি

বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১৩, ২০২০,২:২০ অপরাহ্ণ
0
10

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীন ‘ডিএনএ ল্যাবরেটরী ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর’ নামে নতুন একটি অধিদপ্তরের প্রজ্ঞাপন গত ৯ আগস্ট জারী করা হয়েছে। ডিঅক্সিরাইবোনিউক্লিক এসিড (ডিএনএ) আইন, ২০১৪ এর ধারা ২০ অনুযায়ী এ প্রজ্ঞাপন জারী হয়েছে।

          পূর্ণাঙ্গ ডিএনএ ল্যাবরেটরি ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর গঠনের ফলে দ্রুত ও নির্ভুলভাবে বাংলাদেশে ডিএনএ প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে অপরাধী ও নিখোঁজ ব্যক্তি শনাক্তকরণ, পিতৃত্ব ও মাতৃত্ব নির্ধারণ ও প্রাকৃতিক দুর্যোগ বা দুর্ঘটনাজনিত কারণে মৃত ব্যক্তি শনাক্ত করা সম্ভব হবে।

          উল্লেখ্য, নারী নির্যাতন প্রতিরোধকল্পে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীন মাল্টিসেক্টরাল প্রোগ্রামের আওতায় প্রতিষ্ঠিত ন্যাশনাল ফরেনসিক ডিএনএ প্রোফাইলিং ল্যাবরেটরি ঢাকা মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাসের নিউক্লিয়ার মেডিসিন বিল্ডিংয়ের ১১ তলায় অবস্থিত। ঘৃণ্যতম অপরাধ দমনে এই ডিএনএ ল্যাবরেটরির মাধ্যমে পুলিশ ও অন্যান্য আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে সহায়তা প্রদান করা হয়। ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে পিতৃত্ব অথবা মাতৃত্বের প্রমাণ, বিদেশে গ্রহণেচ্ছুকদের প্রয়োজনীয় ডিএনএ পরীক্ষা, বংশের ধারা প্রমাণ, বিভিন্ন দুর্যোগে ও দুর্ঘটনায় নিখোঁজ এবং মৃত ব্যক্তির পরিচিতি উদ্ধারে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে থাকে। এই ল্যাবরেটরি তাজরীন ফ্যাশন্স এর অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা এবং রানা প্লাজা ধসে অজ্ঞাত মৃতদেহ শনাক্তকরণের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।

          রাজশাহী, সিলেট, বরিশাল, খুলনা, রংপুর ও ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বিভাগীয় ডিএনএ স্ক্রিনিং ল্যাবরেটরি স্থাপন করা হয়েছে। বিভাগীয় ল্যাবরেটরিসমূহ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে গৃহীত মামলার নমুনা সংগ্রহ করে ন্যাশনাল ফরেনসিক ডিএনএ প্রোফাইলিং ল্যাবরেটরিতে ডিএনএ পরীক্ষার জন্য প্রেরণ করে থাকে।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে