চসিক মেয়রের সাথে রাশিয়ান রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

সোমবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২০,৭:৪২ পূর্বাহ্ণ
0
9

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) এর মেয়র আলহাজ¦ আ.জ.ম.নাছির উদ্দীনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন ঢাকায় নিযুক্ত রাশিয়ান রাষ্ট্রদূত আলেকজান্ডার আই ইগনাতভ। গতকাল রোববার বিকেলে টাইগারপাস নগর ভবনে এ সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হয়। রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত সিটি কর্পোরেশন কার্যালয়ে এসে পৌঁছলে সিটি মেয়র তাকে ফুলেল শুভেচ্ছাজানান এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন মনোগ্রাম খচিত ক্রেস্ট উপহার প্রদান করেন।

সিটি মেয়র বাংলাদেশের সাথে রাশিয়ার বন্ধুত্বপূর্ণ সুসম্পর্কের উপর গুরুত্বারোপ করে বলেন রাশিয়া বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে সোভিয়েত ইউনিয়ন যে অকুন্ঠ সমর্থন ও সহযোগিতা দিয়েছে,তা বাঙালী জাতি আজীবন শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবে বলে তিনি রাষ্ট্রদূতকে অবহিত করেন। এই প্রসঙ্গে সিটি মেয়র আরো বলেন মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের পর বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু সোভিয়েত ইউনিয়ন দেশের প্রধান সমুদ্রবন্দর সচল করতে মাইন অপসারণের দায়িত্ব গ্রহণ করে। ১৯৭২ সালের ১৮ ডিসেম্বর মাইন উদ্ধারের মতো অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ কাজটি করতে যান রেডকিন। অবশেষে মাইন বিস্ফোরণে প্রাণ হারান বীর ইউরিস রেডকিন। এই ইউরিস রেডকিনকে চিরস্মরণিয় রাখার নিমিত্তে লালদীঘিতে রেডকিন স্মৃতিসৌধ নির্মাণ করা হচ্ছে বলে সিটি মেয়র রাষ্টদূতকে অবহিত করেন।

বৈঠকে চসিকের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডের বিশদ বিবরণ তুলে ধরে সিটি মেয়র বলেন নদী, সাগর, পাহাড় পর্বত ও সমতল বেষ্ঠিত এই চট্টগ্রাম। এই শহরকে দৃষ্টিনন্দন,নিরাপদ,সবুজ ও পরিচ্ছন্ন করতে সিটি মেয়র তাঁর উদ্যোগের কথা রাষ্ট্রদূতকে অবহিত করেন। রাশিয়ার রাষ্টদূত আলেকজান্ডার আই ইগনাতভ চট্টগ্রামের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের কথা উল্লেখ করে বলেন,সাগর নদী ও পাহাড় পর্বত বেষ্টিত এই শহর যেকোনো অতিথিকে মুগ্ধ করে। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি এই শহরটি এখন যেকোনো সময়ের চেয়ে সবুজ ও পরিচ্ছন্ন নগরী। এর জন্য তিনি সিটি মেয়র আলহাজ¦ আ.জ.ম.নাছির উদ্দিনের ভুয়াশি প্রশংসা করেন। সৌজন্য সাক্ষাতকালে সিটি মেয়র বলেন বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে রাশিয়া গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। এই প্রসঙ্গে সিটি মেয়র রুপপুর বিদ্যুৎ কেন্দ্র সহ বিভিন্ন সেক্টরে রাশিয়ার বিনিয়োগের কথা উল্লেখ করেন। বৈঠকে রাষ্ট্রদূত বলেন উন্নয়নের সহযোগি হিসেবে রাশিয়া বাংলাদেশের পাশে আছে এবং আগামীতে থাকবে। রাশিয়া বাংলাদেশের সব উন্নয়ন কার্যক্রমের অংশীদার হতে প্রস্তুত। বর্তমানে বাংলাদেশ ও রাশিয়ার মধ্যে আস্থার সম্পর্ক অত্যন্ত সুদৃঢ় বলে তিনি সিটি মেয়রকে অবহিত করেন। সাক্ষাতকালে ব্যবসা-বাণিজ্য,আমদানি-রফতানি বৃদ্ধি,সামরিক মহড়া, সৌহার্দ্যপূর্ণ ভ্রমন এবং সলিড ওয়েষ্ট ম্যানেইজমেন্টসহ বিবিধ বিষয়ে দুই বন্ধুপ্রতিম দেশের পারস্পরিক সহযোগিতা ও সম্পর্ক আরো বৃদ্ধির বিষয়ে তাঁরা আলোচনা করেন।

এই সময় রাশিয়ান রাষ্ট্রদূত আলেকজান্ডার আই ইগনাতভ এর স্ত্রীও অনারারি কনসুল স্থাপতি আশিক ইমরানও তাঁর স্ত্রী এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সামসুদ্দোহা,প্রধান প্রকৌশলী লে:কর্ণেল সোহেল আহমদ,প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মফিদুল আলম, সিটি মেয়রের একান্ত সচিব মো: আবুল হাশেম, প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ এ কে এম রেজাউল করিম উপস্থিত ছিলেন। পরে রাশিয়ান রাষ্ট্রদূত আলেকজান্ডার আই ইগনাতভ লালদীঘি পাড়ে নির্মাণাধীণ ইউরিস রেডকিনের স্মৃতিসৌধ পরিদর্শন করেন। রেডকিনের স্মৃতিসৌধ এর নির্মাণ কাজ দেখে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করে তজ্জন্য সিটি মেয়রকে ধন্যবাদ জানান।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে