গাজীপুরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে গাছের সাথে বেঁধে গৃহবধুকে নির্যাতন

শুক্রবার, মার্চ ১৯, ২০২১,১২:১৪ অপরাহ্ণ
0
29

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

আজহারুল ইসলাম জনি (গাজীপুর): গাজীপুরের কালিয়াকৈরে এক গৃহবধূকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) বিকেলে কালিয়াকৈর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।
পুলিশ অভিযুক্ত এক নারীকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতার হওয়া নারীর নাম শিলা আক্তার (২৫)। তিনি কিশোরগঞ্জের নিকলি থানার ছাতিরচর এলাকার জুনায়েদ মিয়ার স্ত্রী।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, কিশোরগঞ্জের নিকলি থানার ছাতিরচর এলাকার ফজল মিয়া স্ত্রী-সন্তান নিয়ে গাজীপুর উপজেলার সিনাবহ পশ্চিমপাড়া উন্দারটেক এলাকায় বনবিভাগের জমিতে বাড়ি নির্মাণ করে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছেন।
কিন্তু ফজল মিয়ার সঙ্গে পাশের বাড়ির জুনায়েদ মিয়ার অবৈধভাবে বনের জমিতে থাকা বসতবাড়ির সীমানা দখলকে কেন্দ্র করে বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে ১২ মার্চ বিকেলে ফজল মিয়ার স্ত্রী আয়েশার সঙ্গে পাশের বাড়ির জুনাইদের স্ত্রী শিলার ঝগড়া হয়।
তাদের বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে জুনায়েদ ও তার স্ত্রী শিলা, সহযোগী নাসির মিয়া ও তার স্ত্রী সালেহা বেগম, আজিজ মিয়া, সাহেরা বেগম, শহরবানুসহ আরও কয়েকজন মিলে গৃহবধূ আয়েশাকে ধরে নিয়ে যান। পরে তারা তাকে একটি আমগাছের সঙ্গে বেঁধে মারধর করেন। নির্যাতনের সময় আয়েশা বেগমের মেয়ে নুপুর আক্তার এগিয়ে আসলে তাকেও মারধর করা হয়।

এসময় তাদের চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এসে গৃহবধূ আয়েশাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন। পরে গৃহবধূ আয়েশা বেগম বাদী হয়ে ওইদিনই কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

এদিকে গত বুধবার বিকেলে স্থানীয় মৌচাক ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আব্দুল মান্নান সিকদার ও সিরাজ উদ্দিনসহ কয়েকজন মাতাব্বর বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসার জন্য সালিশ বৈঠকে বসেন। ওই বৈঠকে জুনায়েদকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। কিন্তু নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ আয়েশা বেগম তাদের বিচার মেনে নেননি। মাতাব্বররা তাকে থানা-পুলিশের সহায়তা নিতে বলেন।

পরে আয়েশা বেগম বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার বিকেলে কালিয়াকৈর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ অভিযান চালিয়ে জুনায়েদ মিয়ার স্ত্রী শিলা আক্তারকে গ্রেফতার করে।

নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ আয়েশা বেগম জানান, জমি-সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে জুনায়েদ, নাসির উদ্দিন, আজিজ, সালেহা ও তাদের লোকজন তাকে আমগাছের সঙ্গে বেঁধে বেধড়ক মারধর করেছেন। পরে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল মান্নান জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর স্থানীয়ভাবে বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা করা হয়।
কিন্তু নির্যাতিত নারী বিচারে সস্তুষ্ট না হওয়ায় তাকে আইনের আশ্রয় নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, আয়েশা বেগম নামের এক নারীকে নির্যাতনের অভিযোগে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনায় শিলা আক্তার নামের একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে