কাপাসিয়ার যুবলীগ নেতা জালাল হত্যায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল

শুক্রবার, মার্চ ১৯, ২০২১,১২:০২ অপরাহ্ণ
0
8

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

আজহারুল ইসলাম জনি (গাজীপুর): গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জালাল উদ্দিন হত্যা মামলায় বিচারিক আদালতে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া ১১ জনের মধ্যে ৫ জনের সাজা বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট। বাকি ৬ জনের মধ্যে ৫ জনকে যাবজ্জীবন ও একজনকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

বিচারপতি সহিদুল করিম ও বিচারপতি মো. আখতারুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ বৃহস্পতিবার এ রায় দেন।
 আসামিদের ডেথ রেফারেন্স (মৃত্যুদণ্ড অনুমোদন) ও দণ্ডাদেশের বিরুদ্ধে করা আপিলের শুনানি শেষে এ রায় দেওয়া হয়।
আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের  আইনজীবী ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বশির আহমেদ। আসামিপক্ষের আইনজীবী ছিলেন খন্দকার মাহবুব হোসেন, এস এম শাহজাহান ও সারোয়ার হোসেন।

হাইকোর্টে মৃত্যুদণ্ড বহাল থাকা পাঁচ আসামি হলেন, কাপাসিয়া উপজেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি আবদুল আলীম, যুবদলের কর্মী জজ মিয়া, আল আমিন, ছাত্রদলের কর্মী বেলায়েত হোসেন ও ফারুক হোসেন।

হাইকোর্টে যাবজ্জীবন প্রাপ্ত পাঁচ আসামি হলেন, কাপাসিয়া উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি হালিম ফকির, যুবদলের কর্মী মাহবুবুর রহমান ও আতাউর রহমান, ছাত্রদলের কর্মী ফরহাদ হোসেন ও কাপাসিয়া কলেজ শাখা ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক জুয়েল এবং হাইকোর্টে খালাস দেওয়া হয় জয়নালকে।

 ২০১৫ সালের ৩০ নভেম্বর ১১ জনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছিলেন গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক ফজলে এলাহী ভূঁইয়া।

২০০৩ সালের ১৭ আগস্ট কাপাসিয়া উপজেলার বলখেলা বাজার সংলগ্ন মাঠে যুবলীগ নেতা জালালসহ তার বন্ধুরা গল্প করছিলেন। এ সময় আসামিরা প্রকাশ্যে তাকে কুপিয়ে জখম করে। এতে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় করা মামলায় বিচার শেষে ২০১৫ সালের ৩০ নভেম্বর রায় দেন আদালত। পরে নিয়ম অনুসারে মৃত্যুদণ্ডাদেশ অনুমোদনের জন্য ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে পাঠানো হয়। পাশাপাশি আসামিরা আপিল করেন।  

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে