কর্নফ্লাওয়ারের নানা কাজ!

বুধবার, মার্চ ১০, ২০২১,১২:৪০ অপরাহ্ণ
0
47

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

আজহারুল ইসলাম জনি (নিজস্ব প্রতিবেদক) : রান্নাঘরের অতি পরিচিত উপকরণ কর্নফ্লাওয়ার। নানা রকমের মুখরোচক রান্নায় এর ব্যবহার হয়ে থাকে। কিন্তু জানেন কি, শুধু রান্নার কাজে নয়, আপনার ছোট খাটো সমস্যার সমাধান নিমেষেই করে দিতে পারে কর্নফ্লাওয়ার।

যেসব কাজে ব্যবহার করবেন:

১. গরমকালে অনেকেরই জুতো-মোজা পরলে পা ঘেমে যায়। সেক্ষেত্রে কিছুটা কর্নফ্লাওয়ার নিয়ে পায়ে হালকা করে লাগিয়ে নিন। পা-ঘামার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন।

২. এছাড়া জুতো দুর্গন্ধ হলেও কর্নফ্লাওয়ার কাজে লাগাতে পারেন। জুতোর মধ্যে কিছুটা কর্নফ্লাওয়ার ছড়িয়ে রাখুন। সারারাত রেখে সকালে ঝেড়ে নিন। দুর্গন্ধ থাকবে না।

৩. জানালার গ্লাস পরিষ্কার ও চকচকে করতে কর্নফ্লাওয়ারকে কাজে লাগাতে পারেন। কর্নফ্লাওয়ারের সঙ্গে কিছুটা পানি মিশিয়ে একটা মিশ্রণ তৈরি করুন। এই মিশ্রণটি জানালার কাচে লাগিয়ে একটি কাপড় দিয়ে আলতো করে ঘষে নিন। এরপর ভেজা কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন, কাচ ঝকঝক করবে।

৪. কাচে ধুলো জমে ঝাপসা হয়ে গেলে ঈষদুষ্ণ পানিতে ২ চামচ কর্নফ্লাওয়ার মিশিয়ে স্প্রে বোতলে ভরে নিন। কাচের ওপর এই মিশ্রণ স্প্রে করে খবরের কাগজ দিয়ে মুছে নিন। কাচ চকচকে হবে।

৫. রান্না করতে গিয়ে কোথাও পুড়ে গেলে ফার্স্ট এইড হিসেবে কর্নফ্লাওয়ার কাজে লাগাতে পারেন। এক বাটি ঈষদুষ্ণ পানিতে এক টেবিল চামচ কর্নফ্লাওয়ার ও ১ টেবিল চামচ বোকিং সোডা মিশিয়ে একটা মিশ্রণ তৈরি করুন।
এবার গজ বা পরিষ্কার কাপড় ওই পানিতে ডুবিয়ে পুড়ে যাওয়া জায়গায় লাগিয়ে রাখুন। উপকার পাবেন।

৬. পোশাকে তেলের দাগ লেগে গেলে প্রথমে দাগ লাগা জায়গায় কিছুটা কর্নফ্লাওয়ার ছড়িয়ে দিন। ১৫-২০ মিনিট এইভাবে রাখুন। এরপর নরম ব্রাশ দিয়ে জায়গাটা ঘষে নিন। দাগ উঠে যাবে।

৭. পোশাকে কালি বা জেদি দাগ লাগলে কিছুটা কর্নফ্লাওয়ার পানির সঙ্গে মিশিয়ে একটা পেস্ট তৈরি করুন। দাগ লাগা জায়গায় পেস্টটা লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন। অল্প ভেজা থাকা অবস্থায় নরম টুথব্রাশ দিয়ে জায়গাটা ঘষে দিন। দাগ চলে যাবে।

৮. অনেকের বাড়িতেই ঘরের আনাচে-কানাচে পোকা-মাকড় বাসা বাঁধে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে সমপরিমাণ কর্নফ্লাওয়ার ও প্লাস্টার অব প্যারিস একসঙ্গে মিশিয়ে পোকা ঢোকার রাস্তায় দিয়ে রাখুন। পোকা আসবে না।

৯. চটজলদি শাড়িতে মাড় দেওয়ার জন্য পানির সঙ্গে কর্নফ্লাওয়ার মিশিয়ে গরম করুন। মিশ্রণ ঘন হয়ে গেলে ব্যবহার করুন মাড় হিসেবে। শাড়ি শুকিয়ে গেলে ইস্ত্রি করে নিন। পুরনো শাড়িও উজ্জ্বল্য ফিরে পাবে।

১০. সাধের ব্রেসলেট বা চেনে জট পাকিয়ে গেলে অযথা টানা-টানি করবে না। জট লাগা জায়গায় খানিকটা কর্নফ্লাওয়ার ছড়িয়ে দিন। এবার খোলার চেষ্টা করুন দেখবেন অনেক সহজেই জট ছাড়িয়ে নিতে পারবেন।

১১. রূপটানেও কর্নফ্লাওয়ার সিদ্ধহস্ত! খুব তৈলাক্ত ত্বক হলে ট্যালকম পাউডারের সঙ্গে সামান্য কর্নফ্লাওয়ার মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন। এটি শরীরের অতিরিক্ত তেল শুষে নেবে এবং সহজে ঘাম হবে না।

১২. চুল খুব তেলতেলে হয়ে আছে অথচ হাতে শ্যাম্পু করার মতো সময় নেই, এমন সমস্যা তো আমাদের হয়েই থাকে। এক্ষেত্রে চুলের ওপর খানিকটা কর্নফ্লাওয়ার ছড়িয়ে চুল ভাল করে আঁচড়ে নিন। তেলতেলে ভাব সম্পূর্ণ দূর হবে।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে