করোনাকালে নারী ও শিশুর স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে কাজ করে যাচ্ছে সরকার

রবিবার, জুলাই ১২, ২০২০,৪:১৮ পূর্বাহ্ণ
0
10

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

‘অতীতের যে কোনো সময়ের চেয়ে বাংলাদেশ দ্রুতগতিতে অর্থনৈতিক অগ্রগতি অর্জন করছে। বিশ্বের উচ্চপ্রবৃদ্ধি অর্জনকারী দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ প্রথম দিকে। বাংলাদেশের এই অগ্রগতির পিছনে বড় অবদান রয়েছে ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ডের।  কারণ দেশে এখন কর্মক্ষম মানুষের সংখ্যা মোট জনসংখ্যার দুই তৃতীয়াংশ, যাদের বয়স ১৫- ৫৯ বছরের মধ্যে। গত একদশকে দারিদ্র্যের হার ২০.৫০ শতাংশে ও উচ্চ দারিদ্যের হার ১০.৫ শতাংশে নামিয়ে আনতে কর্মক্ষম মানুষের এই শ্রেণি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। বাংলাদেশ ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ডের যে সুবর্ণ সময় পার করছে দেশকে উন্নত দেশের কাতারে নিয়ে যেতে তার শতভাগ সুবিধা কাজে লাগাতে হবে।’

          মহিলা শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা গতকাল ঢাকায় ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পপুলেশন সায়েন্সেস বিভাগ এবং ইউনাইটেড নেশনস্ পপুলেশন ফান্ড (ইউএনএফপিএ)-এর যৌথ উদ্যোগে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস ২০২০ উদ্‌যাপন অনুষ্ঠানের উদ্বোধন পর্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

          কোভিড- ১৯ এর কারণে দিবসটি ভিন্নভাবে উদ্‌যাপিত হচ্ছে উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, করোনার সময়ে মানুষ ঘরে থাকতে বাধ্য হচ্ছে যার কারণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নারী ও শিশু সহিংসতার স্বীকার হচ্ছে। তবে করোনার সময়েও মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় হেল্পলাইন ১০৯, মনোসামাজিক ও আইনি সেবা প্রদানের মাধ্যমে তাদের পাশে রয়েছে। একই সাথে করোনাকালেও নারী ও শিশুর নিরাপদ স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে জেলা ও উপজেলা হাসপাতাল-সহ দেশব্যাপী ১৪ হাজার কমিউনিটি ক্লিনিক ও ৩ হাজারের বেশি ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্র কাজ করে যাচ্ছে।

          প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বিশ্বের ৯০ ভাগ নারী অর্থনীতির অপ্রাতিষ্ঠানিক ক্ষেত্রে কাজ করে যেখানে চাকুরির নিশ্চয়তা কম। কোভিড- ১৯ তাদের জন্য স্বাস্থ্য ও অর্থনীতির ক্ষেত্রে বড় ঝুঁকি তৈরি করেছে। করোনা মহামারির প্রভাবে অর্থনীতি যে ঝুঁকিতে পড়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অর্থনীতিতে গতিশীলতা ফিরিয়ে আনতে এক লাখ কোটি টাকার বেশি ১৯টি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করছেন। প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত এসব প্রণোদনা থেকে আমাদের দেশের নারী উদ্যোক্তা ও কর্মজীবী নারীরা সরাসরি উপকৃত হবেন। 

          বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস ২০২০ এর উদ্বোধন পর্বে ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্ম জুমের মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. আকতারুজ্জামান সূচনা বক্তব্য করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউএনএফপিএ’র কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টিভ ড. আশা তরকেলশন ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. সাদেকা হালিম।

          আলোচনায় বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিশ্ববিদ্যালয়, উন্নয়নসহযোগী-সহ দেশ-বিদেশের দুইশত পঞ্চাশেরও বেশি কর্মকর্তা ও গবেষক ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে যোগদান করে। উদ্বোধনপর্ব শেষে টেকনিক্যাল সেশনে বিভিন্ন বিষয়ে বক্তারা আলোচনা করেন।    

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে