ওমান থেকে বিশেষ ফ্লাইটে দেশে ফিরেছেন ২৮৯ প্রবাসী বাংলাদেশি

শুক্রবার, মে ১, ২০২০,৭:২৭ পূর্বাহ্ণ
0
12

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

ওমান দেশটির কারাগার আছেন বেশ কিছু বাংলাদেশি শ্রমিক বসবাসের বৈধ কাগজপত্র না থাকায়। ২৮৯ জন প্রবাসী বাংলাদেশি দেশে ফিরে এসেছেন কারাগার থেকে বিশেষ ক্ষমায় মুক্তি দেওয়ায়। একটি বিশেষ ফ্লাইটে তাদের দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করে দেশটির সরকার। এ নিয়ে তিন দফায় ৭৫৮ জন প্রবাসী বাংলাদেশিকে দেশে ফেরত পাঠানো হলো দেশটি থেকে।

এর আগে গত শুক্রবার ২৮৯ জন দেশে এসেছিল। এ ছাড়া গত মাসে আগে ১৮০ জনকে দেশে ফেরত পাঠায় ওমান। 

গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬ টা ২১ মিনিটে ওমান এয়ারের একটি বিশেষ ফ্লাইট হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে ২৮৯ জন প্রবাসী বাংলাদেশিকে নিয়ে।  ভিসার মেয়াদ শেষে অবৈধভাবে বসবসারের দায়ে দেশটির শ্রম আদালতের হাতে আটক হয়ছিল এদের বেশিরভাগই। জানা গেছে, এদের ওমানের সোহার জেল ও সামাইল জেল থেকে পাঠানো হয়েছে। 

এ তথ্য নিশ্চিত করে বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন এ এইচ এম তৌহিদ উল আহসান জানান, ইমিগ্রেশনের পর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে সিদ্ধান্ত নেবে স্বাস্থ্য বিভাগ। 

বিমানবন্দর স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়, নিয়ম অনুযায়ী ওমানফেরত সবাইকে প্রথম হজ ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সেখানে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে তাদের প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে।

এদিকে ওমানে মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, মাস্কাটসহ ওমানের বিভিন্ন এলাকা থেকে অবৈধ শ্রমিকদের গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার অভিযানে ফ্রি ভিসার (ফ্রিল্যান্স কাজ), স্পন্সরদের থেকে পালিয়ে কাজ করার অপরাধ এবং যথাযথ বৈধ কাগজপত্র না দেখাতে পারায় প্রায় হাজার খানেক মানুষজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ওমানের গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে মধ্যপ্রাচ্যের অন্য দেশগুলোর মতো কারাগারে থাকা প্রবাসী কয়েদীদের নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর উদ্যোগ নেয় ওমান সরকার। দেশটির সুলতানের বিশেষ ক্ষমার আওতায় গত মাসের শুর থেকে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তানসহ বিভিন্ন দেশের প্রবাসীদের পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু করে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। 

প্রসঙ্গত, মরুর দেশ ওমানে বর্তমানে ৮ লাখ বাংলাদেশি আছেন। কাজের সন্ধানে প্রতিনিয়ত বাংলাদেশ থেকে আরো বহু শ্রমিক প্রবেশ করছেন। এদের মধ্যে বড় একটি অংশ দালালের মাধ্যমে ফ্রি ভিসা নিয়ে এদেশে আসছেন। ফ্রি ভিসায় আসা নাগরিকদের ওমান থেকে বের করে দেওয়ার জন্য দেশটির পুলিশ ও অভিবাসন বিভাগ যৌথভাবে বিভিন্ন সময় অভিযান পরিচালনা করছে। পুলিশের অভিযানে গ্রেপ্তার হওয়ার বড় একটি অংশই থাকে বাংলাদেশি শ্রমিক।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে