ওমানের সুলতানকে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে বাংলাদেশ সফরের আহ্বান

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ৭, ২০২১,৯:৩৮ পূর্বাহ্ণ
0
8

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

ওমানের সুলতান হাইতাম বিন তারিক আল সাঈদকে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বাংলাদেশ সফরের আহ্বান জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

          গতকাল ওমানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাঈদ বদর বিন হামাদ বিন হামুদ আল বুসাইদির সাথে টেলিফোনে আলাপকালে ড. মোমেন এ আহ্বান জানান। সেই সাথে করোনার সময়ে বাংলাদেশের প্রায় সাত লাখ প্রবাসীকে দেখভাল করেছেন, একজনকেও চাকরিচ্যুত হয়ে দেশে ফিরতে হয়নি এবং সম্প্রতি বিমান যাতায়াত চালু করে প্রায় ৪০ হাজার আটকেপড়া শ্রমিককে ফেরত নিয়েছেন বলে তাঁকে ধন্যবাদ জানান বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

          বাংলাদেশে সফলতার সাথে করোনা মোকাবিলার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের প্রশংসা করেন ওমানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ বিষয়ে তথ্য আদান প্রদানসহ দু’দেশ পরস্পরকে সহযোগিতা করতে পারে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

          বদর আল বুসাইদি ওমানের উন্নয়নে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভূমিকার প্রশংসা করেন। করোনার মধ্যে ওমান সরকার প্রবাসী বাংলাদেশিদের পাশে রয়েছে বলে জানান তিনি। করোনাকালীন প্রবাসী বাংলাদেশিদের সার্বিক সহযোগিতার জন্য ড. মোমেন ওমানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

          এবছরের প্রথমার্ধে দু’দেশের মধ্যে Foreign Office Consultation (FOC) অনুষ্ঠানের বিষয়ে দু’দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সম্মতি জ্ঞাপন করেন। দু’দেশের সরকারি ও কূটনীতিক পাসপোর্টধারীদের ভ্রমণের ক্ষেত্রে ভিসা অব্যাহতি প্রদান বিষয়ক চুক্তি শীঘ্রই স্বাক্ষরিত হবে উল্লেখ করে ড. মোমেন বলেন, বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এ চুক্তিতে স্বাক্ষরকারী দ্রুত নির্ধারণ করা হবে।

          ওমানে পলিথিনের বিকল্প হিসেবে বাংলাদেশের পাটজাত পণ্য আমদানির আহ্বান জানান বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ সময় ড. মোমেন বাংলাদেশে বিনিয়োগে Return on Investment প্রতিবেশী দেশের তুলনায় বেশি উল্লেখ করেন। তিনি এদেশের অর্থনৈতিক অঞ্চল ও অবকাঠামো উন্নয়নে ওমানের বিনিয়োগ প্রত্যাশা করেন। বিভিন্ন বিষয়ে পারস্পরিক সহযোগিতার চিহ্নিত করাসহ দু’দেশের ব্যবসায়ীদের পারস্পরিক সফর বিনিময়ের ওপর গুরুত্বারোপ করেন ওমানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। কৃষি ও মৎস্য চাষ বিষয়ক পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধি পেতে পারে বলে ড. মোমেন উল্লেখ করেন।  এ সময় ওমানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশের জিডিপি’র প্রবৃদ্ধিসহ সার্বিক উন্নয়নের প্রশংসা করেন। এছাড়া প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সাথে বাংলাদেশের সুসম্পর্কেরও প্রশংসা করেন তিনি।

          মিয়ানমারের বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে সে দেশে প্রত্যাবাসনের ক্ষেত্রে ওমানের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে ওমানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী উল্লেখ করেন।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে