এবারের মিলাদুন্নবী (সা.) উদযাপনের বিশেষত্ব রয়েছে

শুক্রবার, অক্টোবর ৩০, ২০২০,১১:৩৫ পূর্বাহ্ণ
0
20

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক আলহাজ্ব মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন বলেছেন, ১২ রবিউল আওয়াল মুসলিম সম্প্রদায়ের দুটি ঈদ। একটি ঈদ হলো বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ মুস্তফা (স.) এর জন্মদিন। এ বছর ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উদযাপিত হচ্ছে শুক্রবার জুম্মাবারে। জুম্মাবারও মুসলিমদের আরেকটি ঈদ আনন্দ। তাই এবারের মিলাদুন্নবী (স.) পালনের বিশেষত্ব রয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে তিনি আন্দরকিল্লাস্থ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের পুরনো নগর ভবনের কে বি আবদুচ ছত্তার মিলনায়তনে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (স.) উপলক্ষে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন আয়োজিত খতমে কোরান, মিলাদ মাহফিল ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।

এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চসিক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মুহাম্মদ মোজাম্মেল হক, জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মুফতি আল্লামা সৈয়দ অছিয়র রহমান, হযরত খাজা গরিবুল্লাহ শাহ (র.) মসজিদের খতিব আল্লামা হাফেজ মোহাম্মদ আনিসুজ্জামান আলকাদেরী।এতে উপস্থিত ছিলেন কর্পোরেশনের সচিব আবু সাহেদ চৌধুরী, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মুফিদুল আলম, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়–য়া, স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট (যুগ্ম জেলা দায়রা জজ) জাহানারা ফেরদৌস, আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা আফিয়া আক্তার, প্রশাসকের একান্ত সচিব মুহাম্মদ আবুল হাশেম, চসিক মাদ্রাসা পরিদর্শক মাওলানা হারুন উর রশিদ চৌধুরীসহ কর্পোরেশনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

আলোচনা অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রশাসক মোহাম্মদ খোরশেদ আলম সুজন আরো বলেন, চট্টগ্রামের উন্নয়ন না হলে আমাদের সব অর্জন বৃথা। তিনি চসিকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মিলাদুন্নবীর উছিলায় যাতে বৈশ্বিক মহামারী করোনা থেকে দেশের জনসাধারণ রক্ষা পান এবং মানুষের আয় রোজগারে যাতে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন বরকত দান করেন সেই প্রার্থনা করতে বলেন। কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, আমাদের জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠানের সাথে পবিত্র মিলাদুন্নবী (স.) এর অনুষ্ঠানও এখন যুক্ত হয়েছে।

এবারের মিলাদুন্নবী বৈশ্বিক মহামারীর কারণে বিশেষ সর্তকতা অবলম্বন করে উদ্যাপনের সরকারি সিদ্ধান্ত হয়েছে। আমরা যারা মুসলিম তারা যেন ধর্মীয় আবেগ আড়ম্বরের সাথে মিলাদুন্নবী পালন করতে গিয়ে সরকারি সিদ্ধান্তের সাথে বিরোধ তৈরি না করি, সেই বিষয়ে সচেতন থাকতে হবে। করোনায় স্বাস্থ্যবিধি না মেনে নিজেকে সুরক্ষিত না রাখলে জনস্বাস্থ্যে ঝুঁকি ও হুমকির মুখে পড়তে পারে। তিনি বলেন, ইসলাম আধুনিক ধর্ম। এই ধর্ম প্রযুক্তির সাথে সঙ্গতি রেখে পালন করা যায়। প্রধান নির্বাহী মুসলিমদের ধর্মীয় অনুশাসন মানার পাশাপাশি নিজ ধর্ম সম্পর্কে জ্ঞান আহরণের অনুরোধ করেন।

শেষে দেশ ও জাতির সমৃদ্ধি কামনা ও বৈশ্বিক মহামারী করোনা থেকে দেশের জনসাধারণের রক্ষা এবং সাবেক প্রয়াত মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর রূহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মুনাজাত করা হয়। মুনাজাত পরিচালনা করেন জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলীয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মুফতি আল্লামা সৈয়দ অছিয়র রহমান।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে