ই-অরেঞ্জের চিফ অপারেটিং অফিসার গ্রেপ্তার

বৃহস্পতিবার, আগস্ট ১৯, ২০২১,৪:৪৫ অপরাহ্ণ
0
7

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

গ্রেপ্তার করা হয়েছে ই-অরেঞ্জের চিফ অপারেটিং অফিসার আমান উল্লাহকে । বুধবার (১৮ আগস্ট) রাত ৮ টার দিকে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে গুলশান থেকে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গুলশান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম।

তিনি জানান, ই-অরেঞ্জের বিরুদ্ধে যে মামলাটি হয়েছে, সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে আমান উল্ল্যাহকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সন্ধ্যায় তাকে গুলশান এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে আমাদের একটি টিম।

গুলশান থানা সূত্রে জানা যায়, আমান উল্ল্যাহ‌কে গ্রেপ্তারের সময় তার কাছ থেকে ২৪টি ক্রেডিট কার্ড, ১৬ লাখ টাকা এবং গাড়ি জব্দ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৭ আগস্ট) প্রতারণার শিকার গ্রাহক মো. তাহেরুল ইসলাম সকালে গুলশান থানায় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ই-অরেঞ্জের বিরুদ্ধে মামলা করেন অগ্রিম অর্থ পরিশোধের পরও মাসের পর মাস পণ্য না পাওয়ায়। মামলায় পাঁচ জনকে আসামি করা হয়।

আসামিরা হলেন, ই-অরেঞ্জের মালিক সোনিয়া মেহজাবিন, তার স্বামী মাসুকুর রহমান, আমানউল্ল্যাহ, বিথী আক্তার, কাউসার আহমেদ। মামলার পর ই-অরেঞ্জের মালিক সোনিয়া মেহজাবিন ও তার স্বামী মাসুকুর রহমান অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবুবকর সিদ্দিকের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন।

আদালত শুনানি শেষে জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। বর্তমানে তারা কারাগারে রয়েছেন। তাদের দেশ ত্যাগেও নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন আদালত।

সোমবার রাজধানীর গুলশান-১ এর সড়ক অবরোধ করেন ই-অরেঞ্জের গ্রাহকরা অর্ডার করা পণ্য পেতে । বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক ও সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজা এ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। রাতেই বিক্ষুব্ধ গ্রাহকরা তার সঙ্গে দেখা করতে মিরপুর-১২ তে তার বাসায় যান সড়ক অবরোধের এক পর্যায়ে ।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে