ইংরেজী বর্ষবরণে ডিএমপির নির্দেশনা

বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ৩১, ২০২০,১১:০৬ অপরাহ্ণ
0
7

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

করোনা মহামারির প্রেক্ষাপটে ইংরেজী নববর্ষ বরণে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) বেশকিছু নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। পাশাপাশি যে কোন ধরনের অনকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে জনগণের জন্য সতর্কতামূলক নির্দেশনাও জারী করেছে ডিএমপি।

          আজ রাতে পটকাবাজি, আতশবাজি, বেপরোয়া গাড়ি, মোটর সাইকেল চালনাসহ যে কোন ধরনের অশোভন আচরণ এবং বেআইনী কার্যকলাপ হতে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে অনুরোধ করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ। এছাড়াও ঢাকা মহানগরীতে নিরাপত্তা ও আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখার স্বার্থে কিছু নির্দেশনা মেনে সহযোগিতা করার জন্য সকলকে অনুরোধ জানিয়েছে তারা। নির্দেশনাগুলো হলো-

          ১) সার্বিক নিরাপত্তা ও আইন-শৃঙ্খলার স্বার্থে রাস্তার মোড়, ফ্লাইওভার, রাস্তায়, ভবনের ছাদে এবং প্রকাশ্য স্থানে কোন ধরনের জমায়েত,সমাবেশ বা উৎসব করা যাবে না। ২) উন্মুক্ত স্থানে নববর্ষ উদ্‌যাপন উপলক্ষ্যে কোন ধরনের অনুষ্ঠান বা সমবেত হওয়া যাবে না। নাচ, গান ও কোন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করা যাবে না। ৩) কোথাও কোন ধরনের আতশবাজি অথবা পটকা ফোটানো যাবে না। ৪) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় সন্ধ্যা ৬ টার পরে বহিরাগত কোন ব্যক্তি বা যানবাহন প্রবেশ করতে পারবে না। ৫) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক এলাকায় বসবাসরত শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের গাড়ি নির্ধারিত সময়ের পর পরিচয় প্রদান সাপেক্ষে শাহবাগ ক্রসিং দিয়ে প্রবেশ করতে পারবে। তবে পরিচয় প্রদান সাপেক্ষে নীলক্ষেত ক্রসিং দিয়ে পায়ে হেঁটে প্রবেশ করতে পারবেন। ৬) গুলশান ও বনানী এলাকায় রাত ৮ টার পর বহিরাগতরা প্রবেশ করতে পারবে না। তবে উক্ত এলাকায় বসবাসরতগণ নির্ধারিত সময়ের পর কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ-কাকলী ক্রসিং এবং মহাখালী আমতলী ক্রসিং দিয়ে পরিচয় প্রদান সাপেক্ষে প্রবেশ করতে পারবেন। ৭) একইভাবে উল্লিখিত সময়ে সার্বিক নিরাপত্তার স্বার্থে গুলশান, বনানী, বারিধারা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক এলাকায় যে সকল নাগরিক বসবাস করেন না তাদেরকে বর্ণিত এলাকায় গমনের ক্ষেত্রে নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। ৮) রাত ৮ টার পর হাতিরঝিল এলাকায় কাউকে অবস্থান করতে দেয়া হবে না। ৯) গুলশান, বনানী ও বারিধারা এলাকায় বসবাসরত নাগরিকবৃন্দকে আজ রাত ৮ টার মধ্যে স্ব-স্ব এলাকায় প্রত্যাবর্তনের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। ১০) আজ সন্ধ্যা ৬ টার পর ঢাকা মহানগরীর কোন বার খোলা রাখা যাবে না। ১১) রাত ১০ টার পর সকল ফাস্টফুড দোকান বন্ধ থাকবে। ১২) সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে সীমিত আকারে আবাসিক হোটেলগুলোতে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠান করা যাবে। তবে কোনক্রমেই ডিজে পার্টি করতে দেয়া যাবে না। ১৩) ইংরেজি নববর্ষের প্রাক্কালে আজ সন্ধ্যা ৬টা হতে আগামীকাল ভোর ৬টা পর্যন্ত ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন আবাসিক হোটেল, রেঁস্তোরা, জনসমাবেশ ও উৎসবস্থলে সকল প্রকার লাইসেন্সকৃত আগ্নেয়াস্ত্র বহন না করার জন্য নগরবাসীর প্রতি অনুরোধ করা হয়েছে।

          ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ উপর্যুক্ত নির্দেশনা পালনে ব্যর্থ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে