‘আনুষ্ঠানিকতায় নয়, বঙ্গবন্ধুকে ধারণ করতে হবে হৃদয়ে’

মঙ্গলবার, জুলাই ২৮, ২০২০,৩:৫৪ পূর্বাহ্ণ
0
5

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

          স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস-২০২০ পালন উপলক্ষে স্থানীয় সরকার বিভাগ এবং এর আওতাধীন দপ্তর/সংস্থা ও সকল স্থানীয় প্রতিষ্ঠানের কর্মসূচি চূড়ান্ত করা হয়েছে।

          গতকাল স্থানীয় সরকার বিভাগ আয়োজিত এ উপলক্ষে এক অনলাইন সভায় কর্মসূচি চূড়ান্ত করা হয়।

          স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম, লাকসাম উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতির জানাজা ও দাফনে অংশ নিতে কুমিল্লায় অবস্থান করায় তাঁর সদয় অনুমতিক্রমে স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ সভায় সভাপতিত্ব করেন।

          সভাপতির বক্তব্যে হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, আনুষ্ঠানিকতা পালনের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে বঙ্গবন্ধুকে হৃদয়ে ধারণ করে তাঁর আদর্শ লালন ও পালন করা। জাতির পিতা যে স্বপ্ন নিয়ে দেশ স্বাধীন করেছেন সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করে বাংলাদেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ সোনার বাংলা বির্ণিমাণ করা।

          তিনি বলেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকীর বছরে সরকার অনেক কর্মসূচি নিলেও প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের কারণে তা পালন করা সম্ভব হচ্ছে না।

          জাতির পিতার স্মৃতিচারণ করে সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, বঙ্গবন্ধু কখনোই নিজের কথা ভাবেন নি। তিনি সারা জীবন এদেশের নির্যাতিত ও নিপীড়িত সাধারণ মানুষের মুক্তির জন্য লড়াই-সংগ্রাম করে গেছেন। বঙ্গবন্ধুর মতোই তাঁর সুযোগ্যকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত করে একটি উন্নত দেশ গঠনে দিন রাত নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন বলেও জানান তিনি।

          সভায় জানান হয়, স্থানীয় সরকার বিভাগের অধীন সকল দপ্তর/সংস্থা এবং স্থানীয় প্রতিষ্ঠানসমূহ বঙ্গবন্ধুর শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালনের জন্য জাতীয় শোক দিবসের সাথে সামঞ্জস্য রেখে স্ব স্ব কর্মসূচি প্রণয়ন ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতপূর্বক স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে বাস্তবায়ন করবে।

          জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা অনুষ্ঠান এবং দোয়া মাহফিল ভার্চুয়াল প্লাটফর্ম ব্যবহার করার জন্য স্থানীয় সরকার বিভাগের অধীন দপ্তর/সংস্থা এবং প্রতিষ্ঠানকে বলা হয়।

          জেলা ও উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক জাতীয়ভাবে আয়োজিত শোক দিবসের কর্মসূচিতে দেশের সকল সিটি কর্পোরেশন, জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদকে অংশ নিতেও বলা হয়েছে সভায়।

          সভায় জানানো হয়, স্থানীয় সরকার বিভাগ বঙ্গবন্ধুর শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ এবং ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে আলোচনা সভা এবং দোয়া মাহফিলের আয়োজন করবে।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে