আইইউবির নতুন উপাচার্য অধ্যাপক তানভীর হাসান

মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১,৩:৫৪ অপরাহ্ণ
0
6

[ + ফন্ট সাইজ বড় করুন ] /[ - ফন্ট সাইজ ছোট করুন ]

যুক্তরাষ্ট্রের রুজভেল্ট ইউনিভার্সিটির ফিন্যান্স বিভাগের রলফ এ. ওয়েইল অধ্যাপক, ড. তানভীর হাসান ইনডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ (আইইউবি)’র নতুন উপাচার্য হয়েছেন। তিনি ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১ তারিখে তাঁর নতুন দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। রাষ্ট্রপতি এবং বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আচার্য মোঃ আবদুল হামিদ আগামী ৪ বছরের জন্য আইইউবি’র উপাচার্য হিসেবে অধ্যাপক তানভীর হাসানকে এই নিয়োগ প্রদান করেন।

অধ্যাপক হাসান এর আগে কর্মজীবনে শিক্ষকতার উৎকর্ষতায় একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি অর্জন করেছেন। পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন প্রশাসনিক দক্ষতাও প্রদর্শন করেন যার মধ্যে রয়েছে রুজভেল্ট ইউনিভার্সিটির অ্যাসোসিয়েট প্রভোস্ট (প্ল্যানিং অ্যান্ড বাজেট) হিসেবে দায়িত্ব পালন, দু’বার এমবিএ প্রোগ্রামের অ্যাসোসিয়েট ডিন ও পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন এবং রুজভেল্ট ইউনিভার্সিটির কলেজ অব বিজনেসের ফিন্যান্স অনার্স প্রোগ্রামের প্রতিষ্ঠাতা নির্বাহী পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন। অ্যাসোসিয়েট প্রভোস্ট হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে তিনি ফার্মডি সহ যৌথ প্রোগ্রাম যেমন এমবিএ/আইও সাইকোলজি, এমবিএ/এমএস ক্রিমিনাল জাস্টিস, এমবিএ/হেলথ কেয়ার অ্যাডমিনস্ট্রেশন সহ আরও অনেক নতুন নতুন প্রোগ্রাম চালু করেন এবং পাঠ্যক্রমের উন্নয়ন ঘটান।

অধ্যাপক তানভীর হাসান ১৯৯৩ সালে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের ইউনিভার্সিটি অব হিউস্টন থেকে ফিন্যান্সের ওপর পিএইডি ডিগ্রি অর্জন করেন। এর আগে তিনি ১৯৮৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের বেইলর ইউনিভার্সিটি থেকে এমবিএ এবং ১৯৮৬ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফিন্যান্সে অনার্স ডিগ্রী লাভ করেন। ড. হাসান একজন সার্টিফাইড ফ্রড একজামিনার (সিএফই) যার রয়েছে মাস্টার অ্যানালিস্ট ইন ফিন্যান্সিয়াল ফরেনসিক (এমএএফই) সনদ। এছাড়াও তিনি যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি থেকে ম্যানেজমেন্ট ভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম (এমডিপি) শেষ করেন। ড. হাসান মির্জাপুর ক্যাডেট কলেজের একজন সম্মানিত অ্যালামনাই যেখান থেকে তিনি কৃতিত্বের সাথে ১৯৭৯ সালে এসএসসি এবং ১৯৮১ সালে এইচএসসি পাশ করেন।

অধ্যাপক তানভীর হাসান গবেষণায় অত্যন্ত সক্রিয় এবং বিভিন্ন খ্যাতিমান ব্যবসায়িক ও অর্থনীতি বিষয়ক জার্নালে তার ৪০ টিরও বেশি নিবন্ধ প্রকাশের বিশেষ কৃতিত্ব রয়েছে। তিনি বেশ কয়েকটি জার্নালের সম্পাদক, অভ্যাগত সম্পাদক এবং সম্পাদকীয় বোর্ডের সদস্য হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। এরমধ্যে অন্যতম হলো, স্টাডিজ ইন ইকোনমিকস অ্যান্ড ফিন্যান্স, ম্যানেজারিয়েল ফিন্যান্স, জার্নাল অব ফরেনসিক অ্যান্ড ইনভেস্টিগেটিভ অ্যাকাউন্টিং সহ আরও বেশ কিছু। অধ্যাপক হাসান ৩৭টি দেশে বিভিন্ন পেশাগত ফোরাম, একাডেমিক সভা, বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন, বৃহত্তর পাবলিক সংস্থা, বহুজাতিক উন্নয়ন সংস্থা ও বিগ-৪ অ্যাকাউন্টিং ফার্মে নানা কাজের বিষয়সমূহ উপস্থাপন করেছেন।

অধ্যাপক হাসান এছাড়াও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানে স্বল্প সময়ের জন্য ভিজিটিং স্কলার/আমন্ত্রিত বক্তা হিসেবে সময় দিয়েছেন। এগুলো হলো – ব্যাংক অব ফিনল্যান্ড (ফিনল্যান্ড), ব্যাংক ইন্দোনেশিয়া (ইন্দোনেশিয়া), ইনস্টিটিউট অব মাইক্রো ফাইন্যান্স (বাংলাদেশ), ইউনিভার্সিটি অব শ্রী জয়াবর্ধনেপুরা (শ্রীলঙ্কা), লা ট্রোব ইউনিভার্সিটি (অস্ট্রেলিয়া), স্টকহোম স্কুল অব ইকনোমিকস (সুইডেন), ভিক্টোরিয়া ইউনিভার্সিটি অব ওয়েলিংটন (নিউজিল্যান্ড), ইউনিভার্সিটি অব নাইরোবি (কেনিয়া), ইউনিভার্সিদাদ অ্যাডলফো ইবানেজ (চিলি) সহ আরও অনেক।

ব্যক্তিগত জীবনে অধ্যাপক তানভীর হাসান এক পুত্র ও এক কন্যা সন্তানের জনক। তিনি ভালবাসেন ভ্রমণ করতে, সেইসঙ্গে ভীষণ গলফ অনুরাগী এবং একজন শিল্প সংগ্রাহক।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

বিঃদ্রঃ মানব সংবাদ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে